সাগরিকা দত্তচৌধুরি

করোনা যুদ্ধে যাঁরা শামিল পাড়া প্রতিবেশীর কাছে তাঁদের লাঞ্ছনার শিকার হতে হচ্ছে। ডাক্তারি পেশার এই যন্ত্রণার কথা তুলে ধরে ছবি ও গল্পের মাধ্যমে স্বল্পদৈর্ঘ্যের সিনেমা তৈরি করেছে আর জি কর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ডাক্তারির বর্তমান ও প্রাক্তন ছাত্ররা মিলে। মাত্র ৫ মিনিট ৪১ সেকেন্ডের এই স্বল্পদৈর্ঘ্যের সিনেমার নাম ‘‌প্রতিবেশী ও সময়ের কথা’‌। সাদা কালো অনেকগুলো স্থির চিত্র ও গল্পের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে করোনা যোদ্ধাদের মনের কথা। বাড়ি থেকে দূরে করোনা রোগীদের সুস্থ করতে চিকিৎসকরা প্রাণপাত করে হাসপাতালে থেকে লড়াই করছেন। অথচ সেই চিকিৎসক যখন ডিউটি শেষ করে সপ্তাহ শেষে বাড়ি ফিরছেন তখন শুনতে হচ্ছে পাড়া প্রতিবেশীর শাসানি, চোখ রাঙানি। অথচ এই পাড়ারই যখন কেউ অসুস্থ হয়েছেন তখন মাঝরাতে ওই চিকিৎসকই ছুটেছেন তাঁকে দেখতে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে চেনা মানুষগুলো কীভাবে অচেনা হয়ে যায়। সমাজের সেই দিকগুলো‌ই ধরা হয়েছে কথা ও সংক্ষিপ্ত গল্প আকারে। এটি তৈরির পর ইউটিউবে ছাড়া হয়েছে ৫ জুন।
এর গল্প, চিত্রনাট্য ও নির্দেশনায় রয়েছেন আর জি করের প্রাক্তন ছাত্র ডাঃ দ্বৈপায়ন মজুমদার। তিনি বলেন, ‘‌হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, অ্যাম্বুল্যান্স চালক এমনকি অন্য স্বাস্থ্যকর্মীদের কেউ কেউ পাড়া প্রতিবেশীর কাছ থেকে নিষ্ঠুর ব্যবহার পেয়েছেন। আমি নিজেও ভুক্তভোগী। চিকিৎসকের গাড়ি বলে কোনও চালক চালাতে রাজি হচ্ছিলেন না। ডাক্তার ছাড়াও, পুলিশ, সাফাইকর্মী–‌সহ অনেকেই আপৎকালীন পরিষেবা দিচ্ছেন। সমাজকে সচেতন হয়ে তাঁদের পাশে থাকার বার্তা দিতে আমাদের এই ছোট্ট প্রয়াস।’‌
আর জি করের প্রাক্তন ও ছাত্র সংসদের প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক তথা তৃণমূল সাংসদ, ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের রাজ্য সম্পাদক ডাঃ শান্তনু সেন বলেন, ‘সামান্য কারণ বা অকারণে চিকিৎসক নিগ্রহের ঘটনা বিগত দিনে একটা দৈনন্দিন ঘটনায় পরিণত হয়েছিল। করোনার সময়ে মানুষকে বাঁচাতে ডাক্তাররা নিজেদের জীবন বাজি রেখে যেভাবে সামনে থেকে লড়াই করে চলেছেন তাতে আশা রাখব আগামী দিনে চিকিৎসককে নিগ্রহের বাসনা সমাজের কোনও মানুষের মনে এলে আজকের এই দিনগুলির কথা মনে রাখবেন। ডাক্তারদের এই সংগ্রামকে শ্রদ্ধার সঙ্গে নিশ্চয়ই স্মরণ করা উচিত।’‌
এই সিনেমা তৈরিতে সহায়তা করেছেন ডাঃ নীলাঞ্জন ঘোষ, অভিষেক সেন, আশিসকুমার পান্ডে, অয়ন কুণ্ডু, অনন্য তপাদার, সুমন নস্কর, আর জি কর মেডিক্যাল কলেজের এক্স স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডাঃ সুবীর গাঙ্গুলি এবং হাসপাতালের ডেপুটি সুপার ডাঃ সুপ্রিয় চৌধুরি।‌

জনপ্রিয়

Back To Top