করোনার জেরে ঘরবন্দি, শিশুদের শ্বাসযন্ত্রের বিকাশে প্রভাব, বলছে গবেষণা

আজকাল ওয়েবডেস্ক: করোনার জেরে বাইরে বের হচ্ছে না শিশুরা। খেলাধুলা নেই, স্কুল নেই, ঘুরতে যাওয়াও হচ্ছে না। শৈশব যেন থমকে গিয়েছে।  মানসিক বিকাশ তো থমকে গিয়েছেই, শিশুদের শারীরিক স্বাস্থ্যেও এর প্রভাব পড়েছে। নতুন গবেষণা বলছে, দীর্ঘদিন বাড়ির ভিতরে থাকায় শিশুদের শ্বাসযন্ত্রের বিকাশে প্রভাব পড়েছে। লকডাউন এর জেরে একদমই বাইরে না বেরোতে পাড়ায় এই সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে শিশুরা।

নতুন গবেষণা বলছে, শিশুদের স্বাভাবিক কার্ডিও রেসপিরেটরি ডেভেলপমেন্ট-এ বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে এই ঘরবন্দি জীবন। এই গবেষণায় ষ সামিল হন ব্রিটেনের অ্যাংলিয়া রাস্কিন ইউনিভার্সিটির একদল গবেষক ও তাঁদের সঙ্গে যোগ দিয়েছিলেন স্পেনের ইউনিভার্সিটি অফ জারাগোঞ্জার আরও একটি দল।

শিশুদের কার্ডিও রেসপিরেটোরি ফিটনেস নিয়ে তাঁরা গবেষণা করেন। যেখানে ১২ থেকে ১৪ বছর বয়সী ছেলেমেয়েদের নিয়ে এই গবেষণা চালানো হয়। গবেষণার পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, স্বাভাবিকের থেকে অনেকটাই কম ফিটনেস লেভেল রয়েছে তাদের শ্বাসযন্ত্র। স্বাভাবিকভাবে এই বিকাশ হলে তা কখনোই সম্ভব নয়। এদের VO2 হঠাৎ ভলিউম অফ ম্যাক্সিমাম অক্সিজেন কনজাম্পশন টেস্ট করা হয়েছিল। গবেষণায় দেখা যায়, গত একবছরে শিশুদের হেলথি ফিটনেস জন লেভেল ৩.৪ শতাংশ কমে গিয়েছে।

এই গবেষণা নিয়ে মুখ খুলেছেন গবেষক লি স্মিথ‌। তিনি বলেন, সাধারণত কৈশোরে VO2 ম্যাক্স লেভেল বাড়তে থাকে। একটি নির্দিষ্ট বয়স পর্যন্ত এটি বৃদ্ধি পায়। যদিও গবেষণায় ১২ বছরের ছেলে ও ১৪ বছরের মেয়েদের মধ্যে এই লেভেল কম ধরা পড়েছে। যা শ্বাসযন্ত্রের দুর্বলতার লক্ষণ‌। গবেষকদল জানিয়েছে, ২০১৯ সালের নভেম্বরে এই বয়সের ছেলেমেয়েদের ম্যাক্সিমাম অক্সিজেন ইনটেক লেভেল চেক করা হয়েছিল। পরবর্তীকালে ২০২০ সালের নভেম্বরে তাদের V02 পরীক্ষা হয়। তাতেই এই চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে আসে।