আজকালের প্রতিবেদন, দিল্লি, ১৩ জুলাই

সিবিএসই–‌র দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষায় এবার পাশের হার অনেকটা বেড়েছে। পাশ ৮৮.৭৮ শতাংশ পড়ুয়া, যা গতবারের থেকে ৫.৩৮ শতাংশ বেশি। এবার ছেলেদের তুলনায় মেয়েদের পাশের হার ৫.৯৬ শতাংশ বেশি। পরীক্ষায় বসে মোট ১১,৯২,৯৬১ জন পড়ুয়া। ১ লাখ ৫৭ হাজার ছাত্রছাত্রী ৯০ শতাংশের ওপর এবং ৩৮ হাজারের কিছু বেশি ৯৫ শতাংশের ওপর নম্বর পেয়েছে। করোনার কারণে এবার কোনও মেরিট লিস্ট প্রকাশ হয়নি৷ তাছাড়া ‘‌ফেল’‌ শব্দটির বদলে এবার ব্যবহার করা হয়েছে ‘‌‌এসেনশিয়াল রিপিট’‌ শব্দবন্ধ। 
সোমবার বেলা সাড়ে ১২টার পর দ্বাদশ শ্রেণির ফল প্রকাশের কথা ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়নমন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশঙ্ক। বোর্ড আগেই জানিয়ে দিয়েছিল, ওয়েবসাইটে গিয়ে অ্যাডমিট কার্ড অনুযায়ী রোল নম্বর, স্কুল নম্বর, সেন্টার নম্বর এবং অ্যাডমিট কার্ড আইডি দিলেই রেজাল্ট দেখা যাবে। বোর্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যারা ফলাফলে সন্তুষ্ট নয় তারা চাইলে আবার পরীক্ষায় (‌অপশনাল টেস্ট)‌ বসতে পারবে।  এদিন cbse.nic.in, www.results.nic.in, www.cbseresults.nic.in— এই ওয়েবসাইটগুলিতে পরীক্ষার ফল দেখেছে ছাত্রছাত্রীরা। পাশাপাশি স্কুলগুলির রেজিস্টার্ড ই–‌মেল আইডি–‌তেও পড়ুয়াদের ফলাফল পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে৷ এ ছাড়াও টেলিফোন বা মোবাইলে আইভিআরএস পদ্ধতিতে ফলাফল জানতে পারবে ছাত্রছাত্রীরা৷ মাইক্রোসফট এসএমএস অর্গানাইজার অ্যাপ, ডিজিলকার, উমঙ্গ, ডিজিরেজাল্টস–‌এর মতো বিভিন্ন অ্যাপেও ফলাফল জানা যাচ্ছে৷ ত্রিবান্দ্রম অঞ্চলে পাশের হার সব থেকে বেশি। সেখান থেকে পাশ করেছে ৯৭.৬৭ শতাংশ পড়ুয়া, বেঙ্গালুরু থেকে পাশ করেছে ৯৭.০৫ শতাংশ, দিল্লি পশ্চিমে ৯৪.৬১ শতাংশ, দিল্লি পূর্বে ৯৪.২৪ শতাংশ, চেন্নাইয়ে ৯৬.১৭ শতাংশ৷ 
এ বছর বদলে গিয়েছে রেজাল্ট জানা এবং মার্কশিট পাওয়ার উপায়৷ কারণ মোটের ওপর এখনও সকলেই ঘরবন্দি, বিশেষ করে পড়ুয়ারা তো বটেই৷ এই অবস্থায় ছাত্রছাত্রীদের মার্কশিট পাওয়ার উপায় আগেই এসএমএস করে জানিয়েছে সিবিএসই বোর্ড৷ পরীক্ষার্থীদের নথিভুক্ত মোবাইল নম্বরে এসএমএস করে বলা হয়েছে DigiLocker app ডাউনলোড করতে৷ ফোনে অ্যাপ ডাউনলোড না করলে সরাসরি digilocker.gov.in–‌এ গিয়ে নিজেদের রোল নম্বর ও সিকিউরিটি পিন দিলেও মিলছে মার্কশিট৷ প্রথমে digilocker.gov.in বা DigiLocker app খুলে তারপর CBSE বোর্ডে যে ফোন নম্বরটি রেজিস্টার করা আছে, সেটি দিয়ে লগ–‌ইন করতে হচ্ছে৷ তারপর পাঠানো হচ্ছে একটি ওটিপি, যা দিয়ে অ্যাকাউন্টে ঢুকতে হবে৷ আধার কার্ডের মাধ্যমেও অ্যাকাউন্টে ঢোকা যাবে৷ ওটিপি দিয়ে সিস্টেমে ঢোকার পর, চাওয়া হবে পিন নম্বর৷ পরীক্ষার্থীদের রোল নম্বরের শেষ ৬টি নম্বর হল সেই সিকিউরিটি পিন৷ লগ–‌ইনের পর সিবিএসই–‌র ডিজিটাল মার্কশিট দেখতে পাওয়া যাবে৷ ডিজিলকারের ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড ছাত্রছাত্রীদের নথিভুক্ত মোবাইল নম্বরে এসএমএস করে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে৷ কলেজে ভর্তির জন্য ব্যবহার করা হবে এই ডিজিটাল মার্কশিট৷

লখনউয়ের দিব্যাংশী জৈন। পেয়েছে ১০০%। ছবি: পিটিআই

জনপ্রিয়

Back To Top