Booster Dose: করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে বুস্টার ডোজই রক্ষাকবচ, দাবি গবেষণায়

আজকাল ওয়েবডেস্ক: করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে ভাইরাসের দাপট থেকে রক্ষা পেয়েছেন বুস্টার ডোজ নেওয়া অধিকাংশ ব্যক্তিই।

সাম্প্রতিকতম গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, বুস্টার ডোজ নিয়েছেন এমন ৭০ শতাংশ রোগী কোভিড আক্রান্ত হননি তৃতীয় ঢেউয়ে। ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের ন্যাশনাল টাস্কফোর্সের কো-চেয়ারম্যান ড. রাজীব জয়াদেবনের উদ্যোগে এই গবেষণাটি করা হয়। প্রায় ৬ হাজার মানুষকে নিয়ে সমীক্ষাটি করেন গবেষকরা। 

 

গবেষণায় আরও বলা হয়েছে, টিকার দুটি ডোজ নিয়েছেন এমন ৪৫ শতাংশ ব্যক্তি, যাঁরা বুস্টার ডোজ নেননি তাঁরা করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে সংক্রমিত হয়েছেন। যাঁদের নিয়ে সমীক্ষাটি করা হয়েছে, তাঁদের প্রত্যেকেরই করোনা টিকার দুটি ডোজ নেওয়া ছিল। ৬ হাজার জনের মধ্যে ২ হাজার ৩০০ জনের বুস্টার ডোজ নেওয়া ছিল। তাঁদের মধ্যে ৩০ শতাংশ করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন। বুস্টার ডোজ নিয়েছেন, এমন ব্যক্তিদের মধ্যে অধিকাংশই স্বাস্থ্যকর্মী এবং সকলেই এন৯৫ মাস্ক ব্যবহার করেছেন। 

গবেষকদের দাবি, দ্বিতীয় ডোজ এবং বুস্টার ডোজ নেওয়ার মধ্যে সময়ের ব্যবধান এতটাই, যে অ্যান্টিবডি একেবারেই কমে যায় অধিকাংশের। টিকা নেওয়া সত্ত্বেও করোনা আক্রান্ত হওয়ার এটিও একটি কারণ। ৪০ বছরের নীচে এমন ব্যক্তিরাই করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে আক্রান্ত হয়েছেন বেশি। কোভিশিল্ড বা কোভ্যাক্সিন, দুটি টিকা নেওয়া ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা সমান ছিল বলেও জানাচ্ছেন গবেষকরা। তবে করোনা আক্রান্ত হলেও গুরুতর অসুস্থতার হার ছিল অত্যন্ত কম। অধিকাংশ করোনা রোগীই ছিলেন উপসর্গহীন। মৃদু উপসর্গ নিয়ে বাড়িতেই ঘরবন্দি ছিলেন অনেকে। 

আরও পড়ুন: দেশে ৩ হাজার ছুঁইছুঁই দৈনিক সংক্রমণ, আজ মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক প্রধানমন্ত্রীর 

আকর্ষণীয় খবর