আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সুশান্তের আত্মহত্যা–কাণ্ডে এবার রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে এফআইআর করেছেন প্রয়াত অভিনেতার বাবা। অভিনেতার বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনা ও মানসিক প্রতারণার অভিযোগ আনা হয়েছে। মুম্বই পুলিশ এই ঘটনায় তদন্ত করছে। এখনও পর্যন্ত ৪০ জনের বয়ান রেকর্ড করেছে পুলিশ। সেই তালিকায় আদিত্য চোপড়া, সঞ্জয় লীলা বানশালি, শেখর কাপুর–সহ অন্যরা রয়েছেন। রিয়া চক্রবর্তীর বয়ানও রেকর্ড করা হয়েছে। সম্প্রতি মহেশ ভাট এবং করণ জোহরের ম্যানেজারের বয়ানও রেকর্ড করা হয়েছে। আগামিদিনে ডাকা হতে পারে করণ জোহরকেও। 
রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে কেন এফআইআর করলেন সুশান্তের বাবা?‌ জেনে নিন ১০টি তথ্য। তিনি জানালেন, 
১.‌ ২০১৯ এর আগে সুশান্তের মধ্যে কোনও মানসিক অস্থিরতা ছিল না। রিয়া ওর জীবনে আসার পর থেকে কেন অস্থিরতা তৈরি হল।
২.‌ সুশান্তের জন্য যে চিকিৎসা চলছিল, তার কোনও অনুমতি পরিবারের থেকে কেন নেওয়া হয়নি।
৩.‌ আমরা বিশ্বাস করি সুশান্তের চিকিৎসকরাও এই ষড়যন্ত্রের অংশ। 
৪.‌ যখন রিয়া জানতে পারল আমার ছেলে মানসিকভাবে অসুস্থ, তখন ও সুশান্তের পাশে থাকেনি। উল্টে সব কাগজপত্র নিয়ে বেরিয়ে গিয়েছিল। এটাই আমার ছেলেকে আত্মহত্যা করতে বাধ্য করে। 
৫.‌ আমার ছেলের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের নথি বলছে, সেখানে ১৭ কোটি টাকা ছিল। সেখান থেকে ১৫ কোটি টাকা এক অপরিচিতের অ্যাকাউন্টে পাঠানো হয়েছিল। সেই অ্যাকাউন্টের সঙ্গে আমার ছেলের কোনও সম্পর্ক নেই। এটাও তদন্ত করে দেখা হোক। 
৬.‌ রিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক হওয়ার পর কেন ছবি পাচ্ছিল না সুশান্ত? এটা খুঁজে দেখা দরকার। 
৭.‌ কুর্গে জৈবকৃষির ব্যবসার উদ্যোগ নিয়েছিল সুশান্ত। সহযোগী ছিলেন বন্ধু মহেশ। কিন্তু এই উদ্যোগে বাধা দেন রিয়া চক্রবর্তী। হুমকি দেন, ‘‌চিকিৎসার নথি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ করে দেবে। শেষ করে দেবে তাঁর ফিল্ম কেরিয়ার।’‌ 
৮.‌ যখন সুশান্ত রিয়ার আপত্তি শোনেনি, তখন ছেলের ক্রেডিট কার্ড, ল্যাপটপ, চিকিৎসার নথি, গয়না নিয়ে চম্পট দিয়েছিল রিয়া।
৯.‌ আমি বহুবার ছেলের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেছি। কিন্তু রিয়া, তাঁর সহযোগী ও তাঁর পরিবার আমাকে কথা বলতে দেয়নি। 
১০.‌ ‘‌কাই পো চে’‌ ছবি দিয়ে বলিউডে অভিষেক সুশান্তের। তারপর ‘‌ব্যোমকেশ বক্সি’‌, ‘‌ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’‌, ‘‌কেদারনাথ’‌, ‘‌শোনচিড়িয়া’‌–এর মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন। তাঁর শেষ ছবি দিল বেচারা গত সপ্তাহে মুক্তি করেছে। দর্শকদের মধ্যে তা তুমুল সাড়া ফেলেছে।  

জনপ্রিয়

Back To Top