সঙ্কর্ষণ বন্দ্যোপাধ্যায়: ‌• কথা ছিল ইন্দিরা গান্ধীর জীবন কাহিনি আনবেন বড়পর্দায়। কিন্তু তারপর সিদ্ধান্ত বদল করে ওয়েব সিরিজে আনার পরিকল্পনা কেন?‌
•• আসলে, রিসার্চ ওয়ার্কের পর বিষয়টা এতটাই বেড়ে গিয়েছিল যে শুধু একটা ছবির মধ্যে দিয়ে এই জীবনকে বড়পর্দায় আনা সম্ভব ছিল না। তাই আমরা এটাকে ওয়েব সিরিজে পরিবর্তন করার কথা ভাবলাম। তবে ঠিক ক’‌টা পর্বে এই ওয়েব সিরিজ আসবে তা এখনও ঠিক হয়নি। আমরা একটা টিম তৈরি করেছি, তারাই এই বিষয়টা দেখছেন।
• কবে থেকে এই ওয়েব সিরিজ আসবে?‌
•• এখনও পর্যন্ত তা ঠিক হয়নি। আসলে অনেক কাজ গুছনো বাকি। তাই একটু দেরি হচ্ছে।
• এই দেরি টা কি গান্ধী পরিবার থেকে অনুমতি মেলার অপেক্ষার কারণে?‌
•• না, না। কারণ এই সিরিজটা করতে গান্ধী পরিবারের কোনও অনুমতির প্রয়োজন আছে বলে মনে করি না। কারণ, এই সিরিজে যা যা থাকবে অনেক আগেই তা প্রকাশিত। এই সিরিজের চিত্রনাট্য তৈরি হয়েছে সাগরিকা ঘোষের লেখা বই থেকে। এবং সেটা ইন্দিরা গান্ধীর জীবনের ওপর যথেষ্ট রিসার্চ করেই লেখা।
• হঠাৎ ইন্দিরা গান্ধীর চরিত্রে অভিনয় করার ভাবনা এল কেন?‌
•• এটা তো আমার অনেক দিনের স্বপ্ন। গত প্রায় দু’‌বছর ধরে এই চরিত্রটা নিয়ে ভাবছি। আমার মনে হয়, ইন্দিরা গান্ধী আমাদের দেশের সবচেয়ে শক্তিশালী প্রধান মন্ত্রী। জীবনের উত্থান-‌পতন গুলোকে তিনি যেভাবে ‘‌ওভারকাম’‌ করেছেন তা তো ইতিহাস। তাছাড়া তাঁর জন্যেই একটা স্বাধীন রাষ্ট্রের জন্ম হয়েছিল। ১৯৭৫-‌এ জরুরি অবস্থা জারি করেছিলেন তিনি। সেখানে তাঁকে বিভিন্ন ভাবে সমালোচিত হতে হয়েছিল। বিদেশি আক্রমণও ঠেকিয়েছেন তিনি। সব মিলিয়ে এরকম একটা শক্তিশালী নারী চরিত্রে অভিনয় করার লোভ সামলানো যায়নি। তবে এই প্রজেক্টকে সফল করার জন্যে এগিয়ে এসেছেন রনি স্ক্রুওয়ালা। তিনিই এই ওয়েব সিরিজের প্রযোজক।
• আপনি তো অভিনয় করেছেন এন টি আর-‌এর জীবনী ছবিতেও। এই ছবিতে অভিনয় করার কারণ কী?‌
•• এই ছবি তেলুগু ভাষায়। এর আগে হিন্দিতে অভিনয় করেছি, বাংলাতেও অভিনয় করেছি, আবার একটা মালায়ালাম ছবিতেও অভিনয় করেছি। কিন্তু তেলুগু ছবিতে কখনও অভিনয় কিরিনি। এই প্রথম নিজের মাতৃভাষায় অভিনয় করতে পেরে ভাল লাগছে।
• জয়ললিতার জীবনী ছবিতেও আপনার অভিনয় করার কথা ছিল। কিন্তু সেই ছবি থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন কেন?‌
•• আসলে এই ইন্দিরা গান্ধী আমার স্বপ্নে জড়িয়ে গেছেন। যতদিন না এই কাজটা শেষ হচ্ছে ততদিন অন্য কোনও দিকে মন দিতে পারছি না। আর মিসেস জয়ললিতাও ছিলেন একজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। কাজেই তাঁর চরিত্রে অভিনয় করে আবার ইন্দিরা গান্ধীর চরিত্রে অভিনয় করলে সেটা একটু একঘেয়ে হয়ে যেতে পারত। তবে আমি খুশি কঙ্গনা এই চরিত্রে অভিনয় করছে বলে।
• সম্প্রতি আপনার ‘‌মিশন মঙ্গল’ মুক্তি পেল। একটা সময় আপনি নিজেই একটা ছবির ভার বয়ে নিয়ে যেতেন। কিন্তু এই ছবিতে আপনার সঙ্গে অভিনয় করেছেন বহু তারকা।
•• হ্যাঁ। একসময় তো আমাকে বলা হত ‘‌মহিলা অমিতাভ বচ্চন’‌। আমার নামের সঙ্গে জড়িয়ে গিয়েছিল ‘‌ওয়ান উওম্যান ইন্ডাস্ট্রি’‌ শব্দবন্ধও‌। ‘‌ডার্টি পিকচার’‌ বা ‘‌কাহানি’‌ ছবির সাফল্যই এর কারণ। অস্বীকার করব না, প্রথমে খুব ভাল লাগত। কিন্তু পরে বুঝেছিলাম এই প্রশংসা আদতে আমার অপকারই করেছে। বিশেষ করে কতগুলো ছবি ফ্লপ করার পর। তাই এখন অনসম্বল কাস্টেও ছবি করতে চাই। আসলে এখন বুঝি, আমি কিছু না, আমার জন্যে সিনেমা চলেনা। আসল জয় সিনেমার।
• ‘‌শকুন্তলা দেবী’‌ জীবনছবিতে অভিনয় করছেন। এই ছবির শুটিং শুরু কবে?‌
•• এই তো সেপ্টেম্বরেই এই ছবির শুটিং শুরু হবে।

ছবি: সুপ্রিয় নাগ 

জনপ্রিয়

Back To Top