আজকাল ওয়েবডেস্ক: বন্ধুকে আত্মহত্যা করা থেকে আটকেছিলেন সুশান্ত। সেই সুশান্ত আত্মহত্যা করতেই পারে না। দাবি সেই বন্ধুর। এর আগে প্রাক্তন প্রেমিকা অঙ্কিতা লোখাণ্ডে এরকম জোর দিয়ে বলেছিলেন, সুশান্ত আত্মহত্যা করেনি। ঘটনার তদন্ত হোক। 
আজ সুশান্ত নেই। কেউ বলছে, তিনি আত্মহত্যাই করেছেন। কেউ বলছে না। সুশান্তের অনুপস্থিতিতে তাঁর বন্ধু গণেশ হিওয়ারকারের মনে পড়ছে সেই সময়গুলির কথা। যখন তাঁর জীবনে কঠিন মুহূর্ত এসেছিল। তাঁর প্রেমিকা তাঁকে চেনে চলে গিয়েছিলেন। বারবার মনে হচ্ছিল, বেঁচে থেকে কী লাভ। তখন সেই সুশান্তই তাঁর সঙ্গে কথা বলে বলে মন শান্ত করানোর চেষ্টা করেন। বোঝানোর চেষ্টা করেন, এটা কোনও সমাধান নয়। গণেশের অন্যান্য বন্দুদের সঙ্গে কথা বলে রেখেছিলেন তিনি। এতকিছুর পর তাঁর বিশ্বাস, সুশান্ত আত্মহত্যা করতেই পারেন না। ‘‌যতদূর পর্যন্ত আমি ওকে চিনি, ব্যক্তিগত, পেশাগত, আর্থিক কারণে সুশান্ত আত্মহত্যা করতেই পারে না। ওর জীবনে ‘‌ব্যর্থতা’ বলে কোনও শব্দই ছিল না। সেরকম কোনও পরিস্থিতি এলে সঙ্গে সঙ্গে সেই মুহূর্তে সবটা ভুলে গিয়ে পরবর্তী সময় নিয়ে ভাবতে শুরু করত। আমি এই ঘটনাকে হত্যা বলে সন্দেহ করছি।’‌ জানালেন গণেশ।‌

জনপ্রিয়

Back To Top