আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‘‌২৫ ফেব্রুয়ারি মুম্বই পুলিশকে বলেছিলাম যে আমার ছেলের প্রাণের ঝুঁকি রয়েছে।’‌ ভিডিও করে এই চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন খোদ সুশান্তের বাবা কেকে সিং। 

১৪ জুন মুম্বইয়ের ফ্ল্যাটে ঝুলন্ত অবস্থায় বলিউড তারকা অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের দেহ মেলে। প্রথমদিকে মুম্বই পুলিশ ঘোষণা করে দিয়েছিল যে সুশান্ত আত্মহত্যা করেছেন মানসিক অবসাদগ্রস্ত হয়ে। তখন বলিউডে স্বজনপোষণ বা ‘‌নেপটিজম’‌-এর প্রসঙ্গ তুলে প্রভাবশালীদের দিকে আঙুল তোলেন সাধারণ মানুষ। কিন্তু দেড় মাসের মধ্যে ঘটনার জল গড়িয়ে যায় অন্যদিকে। যখন সুশান্তের বাবা কেকে সিং সুশান্তের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে পাটনায় এফআইআর দায়ের করেন। তাঁর দাবি, রিয়া চক্রবর্তী সুশান্তের ওপর বিভিন্নভাবে মানসিক অত্যাচার চালিয়েছেন। নিজের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে দেননি সুশান্তকে। আর্থিক প্রতারণাও করেছেন রিয়া। সুশান্তের দিদি জানান, রিয়া ও রিয়ার মা সুশান্তের ওপর কালো জাদু করতেন। এরপর থেকে পাটনা ও মুম্বই পুলিশের তুলনামূলক আলোচনায় নামে গোটা দেশ। কারা কতদিনে কত শতাংশ কাজ এগিয়েছে। এক একদিন একেকটা করে অদ্ভুত ঘটনার সংযোজন হয়ে চলেছে। 
এমনই সময়ে সুশান্তের বাবা একটি ভিডিও করে জানালেন, তিনি ২৫ ফেব্রুয়ারি মুম্বই পুলিশকে ফোন করেছিলেন। তাঁর ভয় ছিল, তাঁর ছেলের আশেপাশের মানুষজন বিশ্বাসযোগ্য নন। তিনি মুম্বই পুলিশকে সতর্ক করে বলেছিলেন, ‘‌আমার ছেলের জীবনের ঝুঁকি রয়েছে।’‌ কিন্তু এখন তাঁর আক্ষেপ, তাঁর ছেলে তো চলেই গেল। এবং ঘটনার ৪০ দিন বাদেও কোনও সুরাহা করে উঠতে পারল না মুম্বই পুলিশ। তাই তিনি বাধ্য হয়ে বিহারের পাটনায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। পাটনার পুলিশকে সাহায্য করা উচিত বলেও জানালেন তিনি। ভিডিওর শেষে তিনি মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার ও মন্ত্রী সঞ্জয় ঝা-কে ধন্যবাদ জানালেন।

জনপ্রিয়

Back To Top