আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সুশান্তের টাকা তিনিই খরচ করতেন। তাঁকে অংশীদার করে অনেক ব্যবসা ফেঁদেছিলেন সুশান্ত। তাতে বিস্তর টাকা খুইয়েছিলেন। প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে এফআইআর–এ এসব অভিযোগই তুলেছেন সুশান্তের বাবা কে কে সিং। 
এবার রিয়ার বিরুদ্ধে তদন্তে নেমে আরও কিছু তথ্য হাতে এল বিহার পুলিশের। তারা মুম্বই গিয়ে খতিয়ে দেখলেন সুশান্তের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের নথি। তাতেই দেখলেন, প্রেমিকার রিয়ার বিমানের টিকিটের দাম, হোটেলে থাকার খরচ— সবই মিটিয়েছেন সুশান্ত। শুধু তাই নয়, রিয়ার ভাই শৌভিকের উড়ান, হোটেলে থাকার খরচও দিয়েছেন সুশান্ত। এজন্য লক্ষ লক্ষ টাকা ট্রান্সফার করেছেন তিনি। এক–আধবার নয়। বহুবার।
মুম্বইতে গিয়ে সুশান্তের মনোবিদের সঙ্গেও দেখা করেছে বিহার পুলিশ। চিকিৎসকের নাম কেশরি চাবড়া। ২০১৯ সালের নভেম্বর থেকে সুশান্তের অবসাদের চিকিৎসা করছিলেন তিনি। জানা গেছে, রিয়াই এই চিকিৎসকের কাছে সুশান্তকে নিয়ে যান। ডা.‌ চাবড়া জানিয়েছেন, ফেব্রুয়ারির শেষ থেকে সুশান্ত ঠিকমতো ওষুধ খেতেন না। খাওয়াদাওয়াও করতেন না। এই নিয়ে অনেক বুঝিয়েও লাভ হয়নি। শেষদিকে সুশান্ত চিকিৎসকের পরামর্শও শুনতে চাইতেন না।
সুশান্তের যে ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট ছিল, সেখানে যোগাযোগ করে বিহার পুলিশ। দেখা গেছে, অ্যাকাউন্টে সুশান্তের নমিনি ছিল তাঁর বোন প্রিয়াঙ্কা সিং। সেই অ্যাকাউন্ট থেকে প্রায়ই রিয়া এবং তাঁর ভাইয়ের অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠিয়েছিলেন সুশান্ত। তাঁদের উড়ান, হোটেলের খরচ দিয়েছিলেন। মৃত্যুর কয়েক দিন আগে সুশান্ত একটি অ্যাকাউন্টে ১৫ কোটি টাকা ট্রান্সফার করেছিলেন। সেই অ্যাকাউন্ট কার, তা নিয়ে তদন্ত হোক চেয়েছেন সুশান্তের বাবা। কে কে সিংয়ের ধারণা, এই অ্যাকাউন্ট রিয়ারই। এবার তা খতিয়ে দেখছে বিহার পুলিশ। ইডি–ও মামলা দায়ের করেছে।    

জনপ্রিয়

Back To Top