আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মুখ খুললেন সানি লিওন। কঙ্গনার খোঁচার উত্তর দিলেন সুন্দর ভাষায়। নামও নিলেন না। কিন্তু বুদ্ধিমানদের জন্য ইশারাই যথেষ্ট।
পর্নস্টার হিসেবে খ্যাতি পাওয়ার পর বলিউডে অভিনয় করতে শুরু করেন তিনি। বলিউড ও দেশের অনেকেই রক্ষণশীল মনোভাব থেকে তাঁকে প্রথম প্রথম মেনে নিতে পারেননি। তাঁকে নিয়ে কুমন্তব্যও করেছিলেন। তারপর ধীরে ধীরে তিনি তাঁর প্রাপ্য সম্মানটুকু পান এই জগতে। আর সেকথাই তুলে ফের অপমান করার চেষ্টা করলেন অভিনেতা কঙ্গনা রানৌত। এই ঘটনার শুরুতে সানি লিওন কোথাও ছিলেন না। তিনি কঙ্গনাকে নিয়ে কোনও মন্তব্যও করেননি। কিন্তু অভিনেতা ঊর্মিলা মাতোন্ডকারকে ‘‌পর্নস্টার’ বলে অপমান করার চেষ্টা করার পরই জল গড়িয়ে যায় অনেকদূর। এবং নিজের যুক্তিকে দাঁড় করাতে তিনি সানি লিওনের নাম ব্যবহার করেন। কঙ্গনা যেভাবে ক্রমাগত বলিউডকে আক্রমণ করে চলেছেন, তার বিরোধিতা করেছিলেন প্রাক্তন কংগ্রেস নেত্রী ও অভিনেতা ঊর্মিলা মাতোন্ডকার। আর তারই পাল্টা জবাবে ‘‌মনিকর্ণিকা’ বলেন,‌ ‘‌ঊর্মিলা যে অভিনয়ের জন্য পরিচিতি পাননি, এটুকু নিশ্চিত। একজন সফট পর্নস্টার যদি ভোটের টিকিট পান, তাহলে আমি তো পাবই’‌। উর্মিলার পাশে দাঁড়িয়ে কঙ্গনাকে একহাত নেন রামগোপাল বর্মা, স্বরা ভাস্কর, সায়নী গুপ্তা, পুজা ভাট, অনুভব সিনহা, প্রমুখ।
কঙ্গনা যদিও নিজের বক্তব্যে অনড় থেকেছেন। প্রশ্ন তুলেছেন, ‘‌পর্নস্টার’‌ কথাটাকে হঠাৎ এত অপমানসূচক কেন মনে করা হচ্ছে?‌ তুলে এনেছেন সানি লিওনির প্রসঙ্গ। লিখেছেন, ‘‌একদা পর্নস্টার সানি লিওনকে গোটা ইন্ডাস্ট্রি গ্রহণ করেছে। তাহলে আজ ভণ্ড নারীবাদীদের কী হল?‌ পর্নস্টার কথাটা এত খারাপ লাগছে কেন?’‌
শুক্রবার সানি লিওন দু’‌টি ছবি পোস্ট করেন ইনস্টাগ্রামে। তার মধ্যে একটি নিজের ও একটিতে চারটি লাইন লেখা। ‘‌এটা বেশ মজার। যারা আপনার ব্যাপারে সব থেকে কম জানে, তারাই আপনাকে নিয়ে সবথেকে বেশি মন্তব্য করেন।’‌ তিনি কারওর নাম না করে কোনও বিদ্বেষমূলক মন্তব্য না করে সোজা বুঝিয়ে দিলেন, তাঁর অবস্থানটা ঠিক কোনখানে।  

View this post on Instagram

Lunch date! Catching up on world drama!

A post shared by Sunny Leone (@sunnyleone) on

জনপ্রিয়

Back To Top