Bidisha Death: একাধিক সম্পর্কই কি ডেকে আনল বিপদ?‌ সুইসাইড নোটে যা লিখলেন বিদিশা.‌.‌.‌

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ পল্লবীর মৃত্যুতে ধাক্কা খেয়েছিলেন।

কিন্তু তার পর তিনিও আর বাঁচতে চাননি। হেঁটেছেন ওই পথেই। কিন্তু মাত্র ২১ বছর বয়সে কেন এমনটা করলেন মডেল বিদিশা দে মজুমদার?‌ কাজ নিয়ে অবসাদ নাকি অন্য কিছু?‌ ঝুলন্ত দেহের পাশে তিন পাতার সুইসাইড নোট মিলেছে। তাতে আঁচ দিয়েছেন মডেল নিজেই।
বিদিশার বন্ধুরা জানিয়েছেন, কাজ পাওয়া নিয়ে অবসাদ তো ছিলই। পাশাপাশি সম্পর্কের টানাপোড়েনও কাল হয়েছিল। সেসব বোঝা যেত বিদিশার শেষ কিছু পোস্ট থেকেও। বন্ধুরা জানিয়েছেন, কাঁকিনাড়ার মেয়ে বিদিশা কলকাতায় এসে নিউটাউনের এক যুবকের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। অজানা কারণে সেই সম্পর্কে ইতি পড়ে। এর পর এক জিম ইনস্ট্রাক্টরের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি হয় বিদিশার। 

 

Pakistan: ভোটের দাবিতে বিক্ষোভ দেখিয়ে ইসলামাবাদে ইমরানরা, রুখতে মোতায়েন সেনা


পেশীবহুল চেহারার এই যুবকের প্রেমে হাবুডুবু খেতে থাকেন বিদিশা। প্রায়ই দামি উপহার কিনে দিতেন তাঁকে। যদিও বন্ধুদের কাছে আক্ষেপ করেছিলেন, প্রেমিক আর তাঁকে আজকাল পাত্তা দেন না। এদিকে তিনি কিছুতেই ভুলতে পারছেন না। ইনস্টাগ্রামে নিজের ছবি দিয়ে বিদিশা লেখেন, ‘কী অদ্ভুত পরিস্থিতি! ও আমার হবে না, কোনও দিন। আমি ওকে ছাড়া থাকতে পারব না, কোনও দিন!’ প্রেমিককে ভুলতে নেশাও করতেন মডেল। 
যদিও সুইসাইড নোটে এসব লেখেননি তিনি। সেখানে বারবার মা, বাবা, বোনের কথা লিখেছেন। তাঁদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার কথা লিখেছেন। জানিয়েছেন, সবাইকে তিনি খুব ভালোবাসতেন। তাঁরাও চোখে হারাতেন বিদিশাকে। তাঁর মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নন, সেকথাও জানিয়েছেন তিনি। এও লিখেছেন, আগে দু’‌ বার আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু পারেননি। কেরিয়ারেও তেমন সাফল্য পাচ্ছিলেন না। সেকথাও স্পষ্ট লিখে গিয়েছেন বিদিশা। 

https://www.instagram.com/reel/CdvspDMjtyd/?utm_source=ig_web_copy_link

আকর্ষণীয় খবর