বিনোদনের প্রতিবেদন:‌ ইদানীং কালে প্রতিদিনের খবরে প্রায়ই উঠে আসে মহিলাদের ওপর ঘটে যাওয়া নানান অত্যাচারের খবর। এগুলি সবই বিচ্ছিন্ন ঘটনা, নাকি এই প্রত্যেকটা ঘটনার পেছনেই আছে সংঘবদ্ধ কোনও দুষ্টচক্র?‌ সেই বিষয় নিয়েই এবার সিনেমা তৈরি করছেন রাজা চন্দ। ছবির নাম ‘‌হারানো প্রাপ্তি’‌।
ছবির গল্প ‘‌মায়া’‌কে কেন্দ্র করে। একটি দুর্ঘটনায় এই মায়া অত্যাচারিত হয়। আর রস্তায় সেই মায়াকে দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে মৈনাক। মৈনাক বিদেশে চাকরি করে। কয়েকদিনের ছুটিতে কলকাতায় এসেছে। তার আবার একজন প্রেমিকা আছে—নম্রতা। কিন্তু একদিন রাতে শহরের রাজপথে অত্যাচারিত মায়াকে উদ্ধার করার পর মৈনাকের জীবন অনেকটাই পাল্টে যায়। কী করে, সেটাই গল্প।
এই মৈনাকের চরিত্রে অভিনয় করছেন সোহম। আর মায়ার চরিত্রে অভিনয় করছেন তনুশ্রী চক্রবর্তী। এবং মৈনাকের প্রেমিকা নম্রতার চরিত্রে অভিনয় করছেন পায়েল সরকার। তবে রাজা চন্দ বললেন ‘‌এই ছবির গল্প কিন্তু মৌলিক। গল্প ও চিত্রনাট্য লিখেছেন পদ্মনাভ দাশগুপ্ত। সম্প্রতি শুরু হল এই ছবির শুটিং।
অন্যদিকে অনেকদিন পরে আবার পরিচালক রাজীবের সঙ্গে জুটি বাঁধছেন সোহম। আর সেই গল্পেরও কেন্দ্রবিন্দু একটি রহস্যময়ী মেয়ে। এবং সেই গল্পও কিন্তু মৌলিক বলে দাবি করছেন পরিচালক রাজীব। এই ছবিতে সোহম অভিনয় করছেন এক কয়লা মাফিয়ার চরিত্রে। সোহমের বিপরীতে অভিনয় করছেন কৌশানী মুখার্জি।
২০১৫ তে সোহম আর শ্রাবন্তীকে নিয়ে ‘‌অমানুষ’‌ ছবি পরিচালনা করেছিলেন রাজীব। এবার এই এখনও নাম না হওয়া ছবি। রাজীব জানিয়েছেন, ‘‌এটা একটা ডার্ক লাভস্টোরি। এবং রাজীব জানিয়েছেন, ‘‌এই প্রথম মৌলিক গল্প নিয়ে ছবি পরিচালনা করছি। তাই আমার কাছে এই ছবিটা স্পেশাল।’‌ ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন অভিমন্যু মুখার্জি।
গল্প সূত্র এই রকম—চন্দন ওরফে চান্দু ঝাড়খন্ডের একজন কয়লা মাফিয়া। চান্দুর সঙ্গে এক অচেনা রহস্যময়ী মেয়ের পরিচয় হয়। আর তার সঙ্গে আলাপের সূত্রেই একদিন চান্দুর মনে হয় এতদিন সে যে জীবনটা কাটিয়েছে তা বৃথাই। কাজেই সেই মেয়েটিকে নিয়ে আন্ডারওয়ার্লড ছেড়ে পালিয়ে যায় চান্দু। কিন্তু এরপরেই আসল গল্প। চান্দুর আন্ডারওয়ার্লডের সঙ্গীরা কি এটা মেনে নেবে?‌ তারা কী চান্দুর ওপর প্রতিশোধ নেবে না?‌ না কি চান্দু তার প্রেমিকাকে নিয়ে সুখে সংসার করবে?‌ জুন মাসে শুরু হবে এই ছবির শুটিং কলকাতা, ঝাড়খন্ড ও হায়দ্রাবাদে।

ছবি:‌ সুপ্রিয় নাগ
 

জনপ্রিয়

Back To Top