সঙ্কর্ষণ বন্দ্যোপাধ্যায়: • ‘‌চ্যাম্প’‌, ‘‌ককপিট’‌, ‘‌কবীর’-‌এর পর ‘‌কিডন্যাপ’‌। দেবের সঙ্গে চার নম্বর ছবি। কতটা কমফোর্ট ফিল করলেন?‌
•• (‌হাসি)‌ একটা কমফোর্ট জোন তো আছেই। আমার মনে হয়, আমার থেকেও দেব আর আমার জুটি সম্পর্কে  এক্সপেকটেশনটা অডিয়েন্সের কাছে আরও বেশি। সাধারণত, পর্দার হিরো-‌হিরোইনকে মানুষ একই প্রেমের দৃশ্যে দেখতে অভ্যস্ত হন। মনে হয় আমি সেই ধারণাটা ব্রেক করতে পেরেছি। ‘‌ককপিট’-‌এ আমি ঠিক দেবের প্রেমিকা নই। আবার ‘‌কবীর’-‌এ আমরা হিরো-‌অ্যান্টিহিরো। আসলে হয়ত দেব আর রুক্মিনীকে দর্শক এই নিয়ে চতূর্থ বার দেখবেন, কিন্তু কখনওই একভাবে দেখবেন না।‌‌‌ এবার কিন্তু আমাদের জুটি একেবারেই রোমান্টিক।
• ‘‌কিডন্যাপ’‌ ছবিতে আপনি মেঘনা চ্যাটার্জির চরিত্রে অভিনয় করেছেন। চরিত্রটা কীরকম?‌
‌•• মেঘনা একজন চিত্রসাংবাদিক। কলকাতাতেই জন্ম এবং পড়াশোনা তার। অসম্ভব সাহসী। সে কলকাতা থেকে দুবাই যায় হিউম্যান ট্রাফিকিং-‌এর ওপর সংবাদ সংগ্রহ করতে। ফলে দুষ্কৃতিদের টার্গেট হয়ে পড়ে মেঘনা। এমন একটা পরিস্থিতি তৈরি হয় যে মেঘনার মনে হয় এর চেয়ে মরে গেলেই শান্তি। এতো গেল সিরিয়াস মেঘনা। এটা ছাড়াও মেঘনার একটা গ্ল্যামারাস দিক আছে যেখানে সে নায়কের সঙ্গে নাচ-‌গানও করছে। এরকম মশলা ছবিতে এই প্রথম অভিনয় করলাম। তবে মশলা ছবি হলেও এর একটা রিয়্যালিস্টিক অ্যাপ্রোচ আছে।
• দেব ছাড়াও এই ছবিতে আছেন চন্দন সেন। ওঁর সঙ্গে এই প্রথম অভিনয় করলেন। অভিজ্ঞতা কেমন?‌
•• চন্দন সেন খুবই অ্যাকমপ্লিশড অভিনেতা। আমার খুবই দুর্ভাগ্য যে ওঁর সঙ্গে আগে কোনও কাজ করিনি। আর এই ছবিতে একসঙ্গে কাজ করলেও আমাদের একসঙ্গে অভিনয় খুব কম। এর মধ্যেই ওঁর কাছ থেকে অনেক কিছু শিখেছি। ওঁর সঙ্গে আরও কাজ করার ইচ্ছা আছে।
• দেব ছাড়া অন্য নায়কের বিপরীতে আপনাকে কবে দেখা যাবে?‌
•• আমি সেই জন্যেই অপেক্ষা করছি। তবে অফার যে আসেনি তা নয়। এর আগে জিৎ-‌এর প্রোডাকশন হাউস থেকে ‘‌বাচ্চা শ্বশুর’‌-‌এ অভিনয়ের অফার ছিল। কিন্তু একই সময়ে সুরিন্দার ফিল্মসের ‘‌কিডন্যাপ’‌-‌এর শুটিং শুরু হয়। ফলে সেই কাজটা আর করা হয়নি। ‘‌শেষ থেকে শুরু’‌ ছবিতেও জিৎ-‌এর বিপরীতে অভিনয় করার সুযোগ এসেছিল। কিন্তু সেই সময়ে ‘‌পাসওয়ার্ড’‌ ছবির কাজ শুরু হওয়ায় সেটাও করা হয়ে ওঠেনি। তবে একটা কথা, চিত্রনাট্য যদি পছন্দ হয় তাহলে একই নায়কের সঙ্গে পর পর দশটা ছবি করতেও আমার অসুবিধে নেই।
• ‘‌‌কিডন্যাপ’ ছবিটা কি সত্যি ঘটনা অবলম্বনে?‌
•• সত্যি ঘটনা অবলম্বনে তো বটেই। তবে এখানে একটা ঘটনা নয়, আমাদের চারপাশে ঘটে চলা এরকম অনেক ঘটনা নিয়ে এই ছবি। হিউম্যান ট্রাফিকিং বা নারী পাচার তো সমগ্র পৃথিবীর একটা জ্বলন্ত সমস্যা। এখনকার সময়ে এরকম একটা ছবির খুবই প্রয়োজন।
• পরিচালক রাজা চন্দর সঙ্গে এটা আপনার প্রথম কাজ। কেমন লাগল?‌
•• যখন আমি ‘‌চ্যাম্প’‌ করি তখন থেকেই রাজাদার সঙ্গে আমার পরিচয়। আমাকে বলেছিলেন, তুমি আমার সঙ্গে ডেবিউ করলে না?‌ ঠিক আছে, তোমাকে নিয়ে এমন ছবি করব যে ছবিতে একদম নতুন লুকে দর্শক তোমায় দেখবে। এই ছবিতে রাজাদা আমাকে যেভাবে এক্সপ্লোর করেছেন সেটা আমার কাছে একদম নতুন। রাজাদার কাছে শিখলাম কীভাবে ক্লোজআপ শটে নিজেকে কন্ট্রোল করতে হয়।
• ‘‌কিডন্যাপ’‌-‌এর সঙ্গে একই দিনে মুক্তি পাচ্ছে জিৎ-‌এর ‘‌শেষ‌ থেকে শুরু’‌। নায়িকার ভূমিকায় কোয়েল। কোনও প্রতিযোগিতা?‌
•• দুটো ছবিতেই দেখবেন আমরা দুই নায়িকা—রুক্মিনী আর কোয়েল ফাটিয়ে দেব। প্রতিযোগিতা তো আছেই। কিন্তু আমি স্বাস্থ্যকর প্রতিযোগিতায় বিশ্বাস করি।
• দেব তো লোকসভা ভোটের প্রার্থী। দেবের হয়ে প্রচারে অংশ নিয়েছেন?‌
•• না, দেবের রাজনৈতিক প্রচারে আমি ছিলাম না। আসলে আমি খুব ক্ষুদ্র একজন অভিনেত্রী। এখনও সেভাবে আমার অভিনেত্রী সত্ত্বা প্রতিষ্ঠা পায়নি। কাজেই রাজনৈতিক প্রচারে আমার অংশ গ্রহণে খুব একটা কিছু হত বলে আমার মনে হয়নি।
• বিয়ে কবে করছেন?‌
•• (‌হাসি)‌ এই যে জুটি হিসেবে কাজ করছি ভাল লাগছে না?‌ বিয়ে দিয়ে কনফার্ম জুটি করে দিতে চাইছেন কেন?‌ আরে, এখনও অনেক দেরি বিয়ের। আগে তো কাজটা মন দিয়ে করি!‌
• আগামী ছবি তো কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়ের পরিচালনায় ‘‌পাসওয়ার্ড’‌।
•• কমলেশ্বরদার ছবিতে কাজ করা একটা দারুণ অভিজ্ঞতা। কমলেশ্বরদার ছবিতে যদি ২ মিনিটের একটা রোলেও সুযোগ পাই তাহলেই অনেক। ওঁর ভিশনটা এতটাই অ্যাডভান্স, এতটাই উচ্চ স্তরের। পাসওয়ার্ডের সাবজেক্ট তো সাইবার ক্রাইম নিয়ে। এতে আমার অভিনীত চরিত্রের নাম নিশা। ভীষণ ইমোশনাল। আমার মনে হয় এরকম একটা চরিত্র বাংলা ছবিতে দর্শক আগে দেখেননি। আপাতত কিছুটা শুটিং হয়েছে। ভোটের পর বাকি শুটিং হবে।
ছবি:‌ সঙ্কর্ষণ বন্দ্যোপাধ্যায়
 

জনপ্রিয়

Back To Top