Tollywood: বিয়ে হয়েছে আধুনিক-ছিমছাম-বৈদিক মতে, সব মিটতেই তূর্যর কোলে রোশনি!

নিজস্ব সংবাদদাতা: ‘‘অনেক বিয়ে দেখেছি। অনেক বন্ধুর বিয়েতেও গিয়েছি। রোশনি ভট্টাচার্য-তূর্য সেনের বিয়ে চিরকাল মনে থাকবে’’, আজকাল ডট ইনকে বন্ধুর বিয়ে নিয়ে বলতে গিয়ে প্রথমেই একথা বললেন সৃষ্টি পাণ্ডে। সৃষ্টি পরিচালক-প্রযোজক রাজ চক্রবর্তীর ভাগ্নি। ধারাবাহিক ‘গোধূলি আলাপ’-এ রোশনির সহ-অভিনেতা। কেন এ কথা বললেন তিনি? তার একটা কারণ নাকি? সৃষ্টির কথায়, ‘‘বিশ্বাস করুন, কোনও মেয়েকে এত হইহই করতে করতে বিয়ের পিঁড়িতে বসতে দেখিনি। মানছি, রোশনি-তূর্যদার এটা দ্বিতীয় বার বিয়ে। রোশনিকে যদি আপনারা দেখতেন, একই কথা আপনারাও বলতেন। বিয়ে বাড়িতেই কত জন বলেছেন, খুব আনন্দ করে বিয়ে করছে মেয়েটা। এভাবেই যেন সারা জীবন আনন্দ করে কাটিয়ে দিতে পারে।’’

 

 

 

View this post on Instagram

A post shared by SHRISTI 🌻 (@iamshristipandey)

সেই নাহ্নীমুখ থেকে উদযাপন শুরু। বাবার সঙ্গে আনন্দ করে পুজোয় বসেছে বিয়ের কনে। তখনও ওঁর মুখে হাসি। তার পর গায়ে হলুদ। তখনও নাচতে নাচতে সমস্ত আচার মেনেছেন। এই সময়েও রোশনির সাজ ছিল দেখার মতো। লাল বেনারসির সঙ্গে মানানসই ফুলের গয়না।

রজনীগন্ধার হাতের বালা, গলার মালা, মাথায় টিকলি। সন্ধের লগ্নে বিয়ে। ওদের চার হাত এক করেছেন দত্তাত্রেয়। তাই কন্যা সম্প্রদান ছিল না। বিয়ে হয়েছে আধুনিক, ছিমছাম ভাবে। বৈদিক মতে। রোশনি বেছে নিয়েছিলেন দুধে আলতা রঙের বেনারসি। ঘরোয়া ভাবে পরেছিলেন। বরের সাজে জোড়-পাঞ্জাবি।

বিয়ের আসরে রোশনির যাওয়াটাও মনে থাকবে সবার। আনন্দপুরের পিছনের দিকে একটি বাগানবাড়িতে বিয়ের আসর। কনের ঘরের থেকে বিয়ের মণ্ডপ অনেক দূরে। কনে নাকি আগেই বলে রেখেছিলেন, তিনি কিছুটা যাবেন পিঁড়িতে বসে। বাকিটা হেঁটে। কিছুটা যাওয়ার পরেই গান বেজে উঠল। ব্যস, রোশনিও পিঁড়ি থেকে এক লাফে নীচে। পানপাতায় মুখ ঢেকে নিজেই নাচতে নাচতে ঢুকে পড়লেন বিয়ের মণ্ডপে! তার পর নিয়ম মেনে বিয়ে। পানপাতা সরিয়ে তাকাতেই রোশনি দেখেন, আনন্দে তূর্যর চোখে জল! রোশনিও কেমন যেন বিহ্বল। সৃষ্টি তখন ছবি তুলছেন। ওঁদের এই অবস্থায় দেখে এক দিকে হাসছেন। অন্য দিকে তাঁরও চোখ বেয়ে জল গড়াচ্ছে।

 

View this post on Instagram

A post shared by SHRISTI 🌻 (@iamshristipandey)

ভাললাগার সেই রেশ বিয়ের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত ছিল। সব মিটতেই হঠাৎ তূর্য কোলে তুলে নেন তাংর নতুন বৌকে। মণ্ডপ প্রেমের গানে ভাসছে। দু’পাশে জ্বলছে বসন তুবড়ি। যাতে রোশনির বিয়ের রোশনাই কিছুতেই ফিকে না হয়ে যায়।

আকর্ষণীয় খবর