Karan Johar: বিপাকে করণ, 'যুগ যুগ জিও'র গান, চিত্রনাট্য চুরির অভিযোগ পরিচালকের বিরুদ্ধে

আজকাল ওয়েবডেস্ক: ধুমধাম করে সদ্য করণ জোহরের আসন্ন ছবি 'যুগ যুগ জিও'র প্রথম ঝলক মুক্তি পেয়েছে।

কিন্তু সেই উচ্ছাসে আপাতত ভাটা পড়েছে। প্রথম ঝলক মুক্তির ঠিক কয়েক ঘণ্টা পরেই সিনেমা ঘিরে বিতর্ক দানা বেঁধেছে। ছবির চিত্রনাট্য থেকে শুরু করে একটি গান চুরির অভিযোগ উঠেছে করণ জোহরের বিরুদ্ধে। 

 

প্রযোজক তথা চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট বিশাল এ সিং করণ জোহরের ধর্ম প্রোডাকশনের বিরুদ্ধে চিত্রনাট্য চুরির অভিযোগ এনেছেন। বিশালের দাবি, ২০২০ সালের তাঁর সংস্থার চিত্রনাট্যের নাম বদলে তা 'যুগ যুগ জিও'তে ব্যবহার করেছেন করণ। তাঁদের সংস্থার সিনেমার নাম ঠিক করা ছিল 'বানি রানি'। সেই ছবির কাহিনি অনুকরণ করেই 'যুগ যুগ জিও'র চিত্রনাট্য লেখা হয়েছে। এখানেই শেষ নয়। বিশাল এও জানিয়েছেন, ২০২০ সালের জানুয়ারিতে স্ক্রিন রাইটিং অ্যাসোসিয়েশন-এ 'বানি রানি' নামের চিত্রনাট্যটি রেজিস্ট্রি করিয়েছিলেন। এরপরই ছবিটির প্রযোজনার জন্য ধর্ম প্রোডাকশনকে প্রস্তাব দেন তিনি। প্রথমে ইতিবাচক সাড়া দিলেও, পরবর্তীতে সেই চিত্রনাট্য নিয়েই 'যুগ যুগ জিও' তৈরি করলেন করণ! এর কারণে বিশাল সোশ্যাল মিডিয়ায় হুমকি দিয়েছেন, 'এবার মামলা দায়ের করব'! 

শুধুমাত্র চিত্রনাট্য নয়, একটি গান চুরিরও অভিযোগ উঠেছে ধর্ম প্রোডাকশনের বিরুদ্ধে। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ্যে করণকে হুমকি দিয়েছেন পাকিস্তানের গায়ক ও রাজনীতিবিদ আবরার উল হক। তাঁর বক্তব্য, 'যুগ যুগ জিও'র ট্রেলারে যে গানটি ব্যবহার করা হয়েছে, সেটি তাঁর গান। তাঁর 'নাচ পাঞ্জাবন' গানটি ছবিতে বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা হয়েছে। এই প্রথম নয়, এখনও পর্যন্ত ৬ বার তাঁর সঙ্গে একই ঘটনা ঘটল। গানটি বিক্রি না করা সত্ত্বেও কীভাবে বৈআইনিভাবে করণ জোহরের মতো মানুষের সংস্থা ব্যবহার করল, তা নিয়েও হতাশ গায়ক। গানটি সরিয়ে না নিলে আইনের দ্বারস্থ হবেন বলেই জানিয়েছেন তিনি। 

আকর্ষণীয় খবর