আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বিদেশের মাটিতে দাঁড়িয়ে জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে কড়া বার্তা দিয়েছিলেন বিশ্ব নেতাদের। তার ফলে গ্রেটা থুনবার্গ এখন গোটা পৃথিবীর কাছে চর্চিত বিষয়। তাঁর দাবি ছিল যে পদক্ষেপ করা উচিত ছিল তা করা হয়নি। এর ফলে আগামী প্রজন্মের কাছে সমস্যার হয়ে দাঁড়াবে। এই মন্তব্যকে সমর্থন করে পিগি চপস বলেন, ‘‌ধন্যবাদ গ্রেটা থুনবার্গ, আমাদের মুখে উপযুক্ত ঘুষি মারার জন্য। পরবর্তী প্রজন্মের জন্য আমাদের আরও ভাল করে জানা দরকার করণীয় কোনটা। কাজটা কঠিন হলেও তা করা দরকার। কারণ দিনের শেষে আমরা একটা গ্রহেই থাকি।’‌ 
সঙ্গে সঙ্গে টুইটার পাল্টা মনে করিয়ে দেয়, বাজি পোড়ানো–বেসরকারি জেট ব্যবহার–রোলস রয়েস নিয়ে ট্রোলড হতে হয়েছিল তাঁকে। এগুলির একটিও পরিবেশকে বাঁচানোর জন্য করা হয়নি। তাই ইন্টারনেট অভিনেত্রীকে ভণ্ড বলেছে। একজন টুইটার ইউজার লিখেছেন, ‘‌এটা সত্যি, যে ধরণের জীবনযাপন সেলিব্রেটিরা করেন, তাতে তাঁদের কোনও অধিকার নেই পরিবেশ বাঁচানো নিয়ে কথা বলার। তাঁদের কার্বন ফুটপ্রিন্ট একজন গরীব মানুষের জীবনের ক্ষতি করে থাকে অনেকাংশে। সেই ক্ষতির সমাধান করা কী সম্ভব পিসি?‌’‌ 
আর একজন লিখেছেন, ‘‌আপনার রোলস রয়েস গাড়ি প্রথমে বিক্রি করে দিন। ভণ্ড।’‌ স্পামিন্দর ভারতী লিখছেন, ‘‌কিছুদিন আগেই আপনি বিয়ে করেছেন। ৬ হাজার সিসি ইঞ্জিনের মার্সিডিজ চড়ছেন। গ্রেটা থুনবার্গের বক্তব্য শুনে কী সেটা ব্যবহার বন্ধ করে দেবেন?‌’‌ এছাড়া নেটিজেনরা তীব্র কটাক্ষ করেছেন তাঁকে। প্রাক্তন এই বিশ্বসুন্দরীর বিয়েতে বাজি পোড়ানো, সিগারেট খাওয়া–সহ নানা বিষয়ে বিঁধেছেন তাঁকে।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top