'শিল্পা আর ওঁর বাচ্চাদের জন্য খারাপ লাগছে...', রাজের গ্রেফতারির পর মন্তব্য পুনম পাণ্ডের

আজকাল ওয়েবডেস্ক: পর্নগ্রাফি ছবি কাণ্ডে সোমবার মধ্যরাতে গ্রেফতার করা হয়েছিল 'শিল্পা শেট্টির স্বামী, ব্যবসায়ী রাজ কুন্দ্রাকে। মঙ্গলবার মেডিকেল চেক আপের পর তাকে আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়। অভিযোগের ভিত্তিতে রাজের জামিনের আর্জি না-মঞ্জুর করে আদালত। ২৩ জুলাই পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতের নির্দেশও দেওয়া হয়েছে রাজকে। 

ঘটনার পরেই সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের কাছে মুখ খুলেছেন বলিউডের আরও এক বিতর্কিত তারকা পুনম পাণ্ডে। শিল্পা এবং দুই সন্তানের উপর যে ঝড় বয়ে যাচ্ছে, তা নিয়েই দুঃখপ্রকাশ করেছেন পুনম। সংবাদমাধ্যমের কাছে তিনি জানান, 'শিল্পা শেট্টি এবং ভিয়ান, সামিশার উপর যে ঝড় বয়ে যাচ্ছে, তা আমি কল্পনাও করতে পারছি না। অতীত নিয়ে নিজের অভিজ্ঞতা ভাগ করার সময় এটা নয়।' 

এরপরেই সংবাদমাধ্যমের কাছে কয়েকটি তথ্য ফাঁস করেন পুনম। জানান, ২০১৯ সালে রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধে বম্বে হাইকোর্টে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন তিনি। কিন্তু তখন তিনি কোনও বিচার পাননি। আর্থিক প্রতারণা সহ একাধিক অভিযোগ জানানোর পরেও কোনও সুরাহা মেলেনি। দুই বছর পর, রাজ কুন্দ্রার গ্রেফতারির পর সেই সময়ের কিছু ঘটনা ফের সংবাদমাধ্যমের সামনে জানান পুনম। 

পুনম স্বীকার করেন রাজের হাত ধরেই ইন্ডাস্ট্রিতে পা রেখেছিলেন তিনি। এরপর রাজ, এবং পুনম মিলে একটি অ্যাপ তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। কিন্তু সেই প্রোজেক্ট কিছুদূর এগোনোর পরেই তিনি কিছু অসঙ্গতি লক্ষ্য করেন। বিশেষ করে টাকার বিনিয়োগ এবং ভাগ বাটোয়ারায়। সেই সময় চুক্তি ভেঙে মাঝ পথেই সরে আসেন পুনম। জানান, এরপরেই রাজের নির্দেশে তাঁর নগ্ন ছবি এবং ফোন নম্বর ফাঁস করা হয়েছিল। অজস্র নম্বর থেকে দিনের পর দিন ফোন আসত। নানা কু প্রস্তাব, অশ্লীল ভিডিও তাঁর ফোনে পাঠানো হত। এমনকি পুনমের বাড়ির সামনেও হাজির হয়ে যেতেন কেউ কেউ। এমন মুহূর্তে দেশ ছেড়েও চলে গিয়েছিলেন তিনি। তিন মাস পরে দেশে ফেরার পরেও এক সমস্যার সম্মুখীন হয়েছিলেন পুনম। তারপর ভয়ের চোটে এবং বাধ্য হয়ে বদলে ফেলেছিলেন নিজের ফোন নম্বর। ২০১৯ সালে রাজের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানালে, শিল্পার স্বামী মন্তব্য করেছিলেন, সেই সংস্থার সঙ্গে তিনি আর যুক্ত নেই।