Bidisha: কেমন ছিল প্রেমিকের সঙ্গে বিদিশার সম্পর্ক?‌ জেরার জন্য ৪ বন্ধুকে ডেকে পাঠাল পুলিশ

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সম্পর্কের টানাপোড়েন যে একটা কারণ, তা এক প্রকার ধরে নিয়েছে পুলিশ।

আর সেই পথেই এগোতে চায় তাদের তদন্ত। মডেল বিদিশা দে মজুমদারের ‘‌আত্মহত্যা’‌–র তদন্তে নেমে একের পর এক তথ্য উঠে আসছে পুলিশের সামনে। এবার কিছু বিষয়ে নিশ্চিত হতে বিদিশার চার বন্ধুকে জেরার জন্য ডেকে পাঠাল নাগের বাজার পুলিশ। 
পুলিশের ধারণা, বিদিশার বন্ধুরা অনেক কথাই জানতেন। গত কয়েক দিন কী করেছিলেন বিদিশা, কোথায় গিয়েছিলেন, সেসব জিজ্ঞেস করা হবে তাঁর বন্ধুদের। পাশাপাশি বিদিশার সম্পর্ক নিয়েও জেরা করা হবে তাঁদের। খতিয়ে দেখা হবে বিদিশার মোবাইলের কল লিস্ট। ইতিমধ্যেই বিদিশার এক বন্ধু সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, অনুভব বেরার সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের কথা।

 

CM Mamata: ‘‌কন্যাশ্রী’‌–র জন্য পড়ছেন দিদিরা!‌ ধন্যবাদ দিতে মালদা থেকে সাইকেলে মমতার বাড়িতে ৮ বছরের সায়ন্তিকা


ওই বন্ধু এও বলেছেন, অনুভবের সঙ্গে সম্পর্কের ক্রমেই অবনতি হচ্ছিল। শেষে ভেঙে গিয়েছিল। বিদিশার সঙ্গে আর যোগাযোগ রাখছিলেন না অনুভব। ফোন ধরছিলেন না। সেই নিয়ে বন্ধুদের কাছে দুঃখ করেছিলেন মডেল। ভেঙে পড়েছিলেন। এমনকী তিনি অবসাদে ভুগছেন, সেই কথাও বলেছিলেন। ইনস্টাগ্রামে নিজের ছবি দিয়ে বিদিশা লেখেন, ‘কী অদ্ভুত পরিস্থিতি! ও আমার হবে না, কোনও দিন। আমি ওকে ছাড়া থাকতে পারব না, কোনও দিন!’ প্রেমিককে ভুলতে নেশাও করতেন মডেল। এসব কথাই বন্ধুদের থেকে বিশদে জানতে চাইবে পুলিশ।
যদিও সুইসাইড নোটে এসব লেখেননি তিনি। সেখানে বারবার মা, বাবা, বোনের কথা লিখেছেন। তাঁদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার কথা লিখেছেন। জানিয়েছেন, সবাইকে তিনি খুব ভালোবাসতেন। তাঁরাও চোখে হারাতেন বিদিশাকে। তাঁর মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নন, সেকথাও জানিয়েছেন তিনি। এও লিখেছেন, আগে দু’‌ বার আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু পারেননি। কেরিয়ারেও তেমন সাফল্য পাচ্ছিলেন না। সেকথাও স্পষ্ট লিখে গিয়েছেন বিদিশা। বন্ধুদের জেরা করে এসব কথাই খতিয়ে দেখতে চায় পুলিশ। 


‌‌

আকর্ষণীয় খবর