‌সঙ্কর্ষণ বন্দ্যোপাধ্যায়: ‘‌আজকাল মানুষ খবরের চেয়ে টিভিতে বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান বেশি দেখেন। আমিও দেখি মাঝরাতে। আমারও বেশ ভালই লাগে। ধারাবাহিকে এখন বেশ ভাল কাজ হচ্ছে’‌, বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। শুক্রবার বিকেলে নজরুল মঞ্চে টেলি আকাদেমি অ্যাওয়ার্ডের পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে।
পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তথ্য ও সংস্কৃতি বিভাগ আয়োজিত এই অনুষ্ঠান এবার শুরু হল একটু অন্যরকম ভাবে। প্রথমে এবছর স্বাধীনতা দিবসের দিন রেড রোডের প্যারেডে যারা ট্যাবলো নিয়ে হাজির ছিলেন পুরস্কৃত করা হল তাদের মধ্যে সেরাদের। পুরস্কার পেল সেরা পাঁচ স্কুল ও পশ্চিমবঙ্গ সরকারের সেরা পাঁচ দপ্তর। পাঁচটি স্কুলের মধ্যে ছিল নবনালন্দা, পাঠভবন, সাউথ পয়েন্ট ও বীরভূম এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার দুটি স্কুল। আর পাঁচ দপ্তরের মধ্যে ছিল ক্রীড়া ও যুবকল্যাণ দপ্তর, তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর, কলকাতা পুলিশ, কলকাতা পুলিশেরই মোটরসাইকেল স্কোয়াড ও পরিবেশ দপ্তর। পুরস্কার তুলে দিলেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী।
শুক্রবার সেরা শিশু অভিনেতার পুরস্কার পেলেন ‘‌জয় বাবা লোকনাথ’‌ ধারাবাহিকের ‘‌লোকনাথ’‌ অরণ্য রায়চৌধুরি, ‘‌গুড়িয়া যেখানে গুড্ডু সেখানে’‌ ধারাবাহিকের ‘‌গুড্ডু’‌ অভিরূপ সেন, ‘‌গুড়িয়া’‌ পৃথা ঘোষ এবং ‘‌রাখী বন্ধন’‌ ধারাবাহিকের  ‘‌রাখী’ কৃত্তিকা চক্রবর্তী। ‘‌ফাগুন বউ’‌ ধারাবাহিকের জন্য সেরা ভিলেন হলেন কৌশিক রায়। এবং ‘‌রানু পেল লটারি’‌ ধারাবাহিকের জন্য নেগেটিভ রোলে সেরা অভিনেত্রী হলেন স্বাগতা মুখার্জি। সেরা চিত্রনাট্যের পুরস্কার পেলেন ‘‌কৃষ্ণকলি’‌ ধারাবাহিকের সুশান্ত দাস ও নন্দলাল মজুমদার, ‘‌ফাগুন বউ’‌ ধারাবাহিকের  লীনা গঙ্গোপাধ্যায় ও শৈবাল ব্যানার্জি এবং ‘‌কলের বউ’ ধারাবাহিকের স্নেহাশিস চক্রবর্তী। সেরা সংলাপের পুরস্কার পেলেন ‘‌করুণাময়ী রানী রাসমণি’‌র অঞ্জন চক্রবর্তী‌। সেরা সহ–‌অভিনেত্রীর পুরস্কার পেলেন নিবেদিতা মুখার্জি ও রূপসা চক্রবর্তী, সেরা সহ–‌অভিনেতা হলেন গৌরব চট্টোপাধ্যায়। সেরা অভিনেতা হলেন বিশ্বজিৎ ঘোষ ও সন বন্দ্যোপাধ্যায় এবং সেরা অভিনেত্রী হলেন ইন্দ্রাণী হালদার, মানালী দে ও দিতিপ্রিয়া রায়। সেরা পরিচালক হলেন অমিত সেনগুপ্ত ও সেরা ধারাবাহিক ‘‌ফাগুন বউ’। সেরা জনপ্রিয় ধারাবাহিকের পুরস্কার পেল ‘‌কৃষ্ণকলি’‌।‌
এ তো গেল ফিকশন ধারাবাহিকের কথা। নন-‌ফিকশন ধারাবাহিকের সেরা সঞ্চালক হলেন যিশু সেনগুপ্ত ও সেরা পরিচালক হলেন অভিজিৎ সেন, ‘‌সা রে গা মা পা’র জন্যে। এ ছাড়াও সেরা কস্টিউম রাজশ্রী মুখার্জি, সেরা আর্ট ডিরেক্টর জয় চন্দ্র চন্দ, সেরা সাউন্ড রেকর্ডিস্ট তড়িৎ সেনগুপ্ত, সেরা মেক আপ শুভাশিস মণ্ডল, সেরা হেয়ার ড্রেসার হলেন শ্যামলী দাস। এদিন অনুষ্ঠানের শুরুতে ‘‌গনেশ বন্দনা’ নাচ পরিবেশন করেন তনুশ্রীশঙ্কর ও ‘‌দুর্গা বন্দনা’‌ নাচে অংশ নেন শুভশ্রী। পুরস্কার প্রদানের শেষে ছিল রাজ চক্রবর্তীর পরিচালনায় ধারাবাহিক ও সঙ্গীত শিল্পীদের নাচ ও গানের অনুষ্ঠান। সঞ্চালনায় ছিলেন অরিন্দম শীল ও জুন মালিয়া।‌‌

মঞ্চে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির সঙ্গে মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস, ইন্দ্রাণী হালদার, মানালি দে ও দিতিপ্রিয়া রায়। নজরুল মঞ্চে। ছবি:‌ সুপ্রিয় নাগ

জনপ্রিয়

Back To Top