আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আট বছর ইন্ডাস্ট্রিতে কসরত করার পর তবে গিয়ে আজ মানু্ষের কাছে তিনি দুর্ধর্ষ অভিনেতা। কিন্তু তাও পঙ্কজ ত্রিপাঠী নিজেকে ‘‌আউটসাইডার’ হিসেবে দেখেননি কখনও‌। কারণ তিনি এতদিনে এটা বুঝে গিয়েছেন যে স্টারকিডেরা খুব সহজে বলিউডে পা ফেলতে পারেন, তা ঠিকই। কিন্তু মাটি শক্ত করে দু’‌পায়ে ভর দিয়ে দাঁড়ানোর জন্য চাই কেবল প্রতিভা। তখন সোর্স কোনও কাজেই লাগে না। তাই নেপটিজম তাঁকে কখনও বিব্রত করেনি। ‘‌টাইমস্‌ অফ ইন্ডিয়া’–‌ এর সঙ্গে একটি সাক্ষাৎকারের সময়ে তিনি জানালেন, ‘‌দর্শকেরা স্মার্ট। তাঁরা জানেন কারা অভিনয় পারেন, কারা পারেন না। শেষ সিদ্ধান্ত তাঁদেরই।’ সত্যিই তো!‌ আজ তাঁর কাছে কোটি কোটি কাজের সুযোগ। শুধু তাই নয়, তাঁর অভিনয় দেখে মুগ্ধ দেশ। তাঁকে এক নামে চেনে সকলে। কিন্তু অনেক স্টারকিডকেই হয়ত একটা ছবি করার পরে আর খুব একটা কাজ করতে দেখাই যায়নি। দর্শকেরা কাকে দেখতে পছন্দ করেন, তা দর্শেকরা বুঝিয়ে দেন। আর তাই তাঁর পথ আটকানোর জন্য নেপটিজম কোথাও খাঁড়া হাতে দাঁড়িয়ে নেই।    
তাঁর শেষ ছবি ‘‌গুঞ্জন সাক্সেনা:‌ দ্য কার্গিল গার্ল’‌। এরপর তাঁকে দেখা যাবে কপিল দেবের বায়োপিক ‘‌’‌৮৩’‌–তে

জনপ্রিয়

Back To Top