আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অসময়ে শ্রীদেবীর মৃত্যুতে স্বভাবতই শোকস্তব্ধ বলিউড। কিন্তু গসিপ লাভারদের মনে উঁকিঝুঁকি মারছে একটাই প্রশ্ন, এদের সবার মধ্যে মিঠুন চক্রবর্তী কোথায়। 
চোখ রাখা যাক ৮০–র দশকে। ১৯৮৪ সালে মুক্তি পায় মিঠুন–শ্রীদেবী জুটির প্রথম ছবি ‘‌জাগ উঠা ইনসান’‌। সেই সময় বলিউডের হিট স্টার মিঠুনের সঙ্গে বলিউডের নতুন গ্ল্যামার কুইনের বন্ধুত্ব গাঢ় হতে সময় লাগেনি। প্রকাশ্যে তাঁরা নিজেদের সম্পর্কের কথা স্বীকার না করলেও বিবাহিত এবং এক সন্তানের বাবা মিঠুনের সঙ্গে অবিবাহিতা শ্রীদেবীর প্রেমের মুচমুচে গসিপ ছিল তখনকার ফিল্মি ম্যাগাজিনগুলির জনপ্রিয় খবর। এই জুটি আরও বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করে।

এমনকি গুজব ছড়ায় ১৯৮৫–তে দু’‌জনে গোপনে বিয়ে করেন। শ্রীদেবীর সঙ্গে মিঠুনের সম্পর্ক নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একদিন মিঠুনপত্নী যোগিতা বলেছিলেন, তিনি স্বামীর দ্বিতীয় বিয়ে মেনে নেবেন। এর মধ্যেই তাঁদের দ্বিতীয় সন্তান জন্মায়। বলিউডের ধারণা, তখন থেকেই মিঠুন–শ্রীদেবীর সম্পর্কে ভাঙন ধরতে শুরু করে। কারণ, মিঠুন শ্রীদেবীকে আশ্বাস দিয়েছিলেন তিনি বিবাহবিচ্ছেদ করবেন। মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন শ্রীদেবী। সেই সময়ই তাঁর পাশে দাঁড়ান বনি কাপুর। বনির সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা বাড়ার ফাঁকেই শ্রীদেবী বুঝতে পারেন যোগিতাকে কখনওই ছেড়ে আসবেন না মিঠুন। এরপরই ১৯৮৮ সালে গোপন বিয়েতে ইতি টানেন দুজনে। পরে শ্রীদেবী গোপনেই বিয়ে করেন বনিকে। তারপর থেকে আর কখনও একসঙ্গে কোথাও দেখা যায়নি মিঠুন–শ্রীদেবীকে। 

জনপ্রিয়

Back To Top