সঙ্কর্ষণ বন্দ্যোপাধ্যায়: ‌• হঠাৎ বাংলা ছবি প্রযোজনায় এলেন কেন?
•• এই ছবির পরিচালক শুভ্রজিৎ মিত্র ও সহ প্রযোজক গৌরাঙ্গ জালান আমাকে ছবির চিত্রনাট্য শোনান। আমি তো প্রথম থেকেই বাংলা ছবির ভক্ত। আমার বাড়ির ভিডিও লাইব্রেরিতে সত্যজিৎ রায়, ঋত্বিক ঘটক, মৃণাল সেনের সব ছবি আছে। কাজেই গত দশ বছর ধরেই বাংলা ছবির সঙ্গে যুক্ত হওয়ার ইচ্ছেটা ছিল। পরে এই ‘‌অভিযাত্রিক’‌ ছবির ভাবনাটা বেশ ভাল লেগে গেল। তবে এটাও বলব, এই সময়ে দাঁড়িয়ে চল্লিশ দশককে পর্দায় ফেরান সত্যিই কঠিন কাজ।
• এক সময়ে সত্যজিৎ রায় ‘‌অপু’কে নিয়ে ট্রিলজি তৈরি করেছিলেন। সেই জায়গায় ‘‌অপু’‌ আবার পর্দায় আনাটা কি বিতর্কের সৃষ্টি করতে পারে?‌
•• আমি জানি বাঙালিরা সত্যজিৎ রায় সম্পর্কে কতখানি আবেগ প্রবণ। তবে আমাদের ছবিটা বিভূতিভূষন বন্দ্যোপাধ্যায়ের মূল উপন্যাস অনুসরণেই হচ্ছে। কিন্তু আমরা ‘‌অপু ট্রিলজি’‌র রিমেক করছি না। ‘‌অপুর সংসার’‌ ছবিটা যেখানে শেষ হচ্ছে মানে অপু কোলে তুলে নিচ্ছে কাজলকে—সেখান থেকেই ‘‌অভিযাত্রিক’-‌এর অভিযান শুরু। আসলে আমরা ‘‌অপু ট্রিলজি’‌কে সামনে রেখে সত্যজিৎ রায়ের দেখানো পথেই এগোব।
• আঞ্চলিক ছবির প্রযোজনা বা পরিচালনায় এবার কি আপনাকে নিয়মিত পাওয়া যাবে?‌
•• যদি কোনও বিষয় আমার হৃদয় ছুঁয়ে যায়, সে যে ভাষাতেই হোক না কেন, তাহলে আবার আঞ্চলিক ছবি প্রযোজনায় ফিরে আসব।
• বাংলার আর কোনও পরিচালকের সঙ্গে কি কাজের কথা হচ্ছে?‌
•• না, এখনও কোনও কথা হয়নি। আগে ‘‌অভিযাত্রিক’‌ শেষ হোক, তারপর মন দেব।
• আপনার শেষ দেখা বাংলা ছবি?‌
•• ‘‌অটোগ্রাফ’ দেখেছি, ‘‌রাজকাহিনি’‌ দেখেছি। সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ছবি আমার ভাল লাগে। এবার তো ‘‌গুমনামি’‌ আসছে। বিষয়টা আমাদের কাছে একটা ‘‌মিথ’‌। ছোটবেলায় গুরুজনদের কাছে গুমনামি বাবার অনেক গল্প শুনেছি। সৃজিত যেটা করেছে তাতে বেশ সাহসের পরিচয় আছে। কারণ ‘‌গুমনামি’ করতে সাহস লাগে। আর ‌সেটাই আমার ভাল লেগেছে। বিতর্ক তো থাকবেই তবে আমি বলব সিনেমাটা শুধু একটা সিনেমাই।
• আপনার নতুন ছবির কাজ কী?‌
•• আমার পরের ছবি বালি মাফিয়াদের নিয়ে। এখন চিত্রনাট্যের কাজ চলছে। তবে অভিনেতা-‌অভিনেত্রী এখনও চূড়ান্ত হয়নি।
ছবি:‌ সঙ্কর্ষণ বন্দ্যোপাধ্যায়‌‌‌ ‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top