আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌বলিউড এমনিতে #‌মিটু আন্দোলনের ঝড়ে বিপর্যস্ত। একের পর এক অভিনেতা–পরিচালক– গায়ককে যৌন হেনস্থার দায়ে অভিযুক্ত করতে উঠেপড়ে লেগেছে বলিউডের অভিনেত্রীরা। সেই ঝড়ের মধ্যে ফের ঋত্বিক রোশনকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন ‘‌কুইন’‌ ্কঙ্গনা রানাওয়াত । তিনি জানিয়েছেন, তাঁর মতে ঋত্বিক রোশনের সঙ্গে কারোর কাজ করাই উচিত নয়। 
#‌মিটু আন্দোলনে অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনেন বলিউডের অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। এরপরই একের পর এক অভিনেত্রী নিজেদের অভিজ্ঞতার কথা সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন। তনুশ্রীর পরই যৌন হেনস্থা নিয়ে সোচ্চার হন কঙ্গনা রানাওয়াত । তিনি জানিয়েছেন, ২০১৫ সালে পরিচালক বিকাশ বহেল তাঁর সঙ্গে অশালীন আচরণ করেন। বিকাশ বহেল ফ্যান্টম ফিল্মসের সহ–প্রতিষ্ঠাতাও ছিলেন। যদিও এই প্রযোজনা সংস্থার আর কোনও অস্তিত্ত্ব নেই।  
কঙ্গনা একটি সাক্ষাৎকারে বিকাশ বহেল প্রসঙ্গে বলেন, ‘‌বিকাশের সঙ্গে যেটা ঘটেছে একদম ঠিক হয়েছে। আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে এমন অনেক মানুষ এখনও রয়েছে যারা মহিলাদের সঙ্গে সঠিক আচরণ করে না। তারা হেনস্থা করে, শ্লীলতাহানি করে, তাদের শাস্তি হওয়া দরকার।’‌ এরপরই কঙ্গনা মুখ খোলেন ঋত্বিককে নিয়ে। তিনি বলেন, ‘‌যে সব মানুষ তাঁদের স্ত্রীদের ট্রফি হিসাবে দেখেন এবং তরুণীদের নিজের রক্ষিতা হিসাবে রাখেন তাঁদেরও শাস্তি হওয়া উচিত।’‌ কঙ্গনা আরও বলেন, ‘‌আমি তো বলব যে ঋত্বিকের সঙ্গে কারোর কাজ করাই উচিত নয়।’‌
কঙ্গনা এবং ঋত্বিককে নিয়ে অতীতে বহু বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। একে অপরকে কলুষিত করা থেকে শুরু করে আইনি নোটিস পাঠানো সবই হয়েছে। কঙ্গনার অভিযোগ অনুযায়ী, কৃশ–৩ এর সময় তাঁর সঙ্গে ঋত্বিকের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। যদিও ঋত্বিক এই অভিযোগ অস্বীকার করে জানান যে কঙ্গনা তাঁকে বদনাম করার চেষ্টা করছেন। অন্যদিকে ঋত্বিক টুইট করে জানিয়েছেন যে, সুপার থার্টিতে বিকাশ বহেলের মতো লোকের সঙ্গে কাজ করা অসম্ভব। যার ওপর যৌন হেনস্থার অভিযোগ আনা হয়েছে। তিনি আশা করেন সব ধরনের তদন্ত করার পর দোষী যেন তার যোগ্য শাস্তি পায়।  


‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top