Contemporary: কনটেম্পোরারি থিমে যাত্রার আসর মাতাচ্ছে নতুন প্রজন্ম

সম্বৃতা মুখার্জি:‌ কোভিড অতিমারি থেকে লর্ডসে সৌরভ গাঙ্গুলির টি–শার্ট ওড়ানো, বিজয় মালিয়া থেকে নীরব মোদি।

মানুষের চিন্তাভাবনা, রোজকার ঘটনাই এখন অভিনয়ে ফুটিয়ে তুলছেন যাত্রাশিল্পীরা। আর কনটেম্পোরারি থিমেই বাজিমাত করতে এগিয়ে আসছে তরুণ প্রজন্ম। মাল্টিপ্লেক্স আসুক বা ওটিটি প্ল্যাটফর্ম, মাঠে বসে সামনাসামনি শিল্পীদের অভিনয় দেখার মাদকতা এখনও ছড়িয়ে রয়েছে গ্রামবাংলা জুড়ে। গ্রামের মেয়ে–বউ–গৃহস্থের বিনোদনের একটা বড় অংশ জুড়ে রয়েছে যাত্রাপালা। আর, এখন সেই মঞ্চেই অভিনয়ের সুযোগ পেতে তরুণ–তরুণীরা নাম লেখাচ্ছেন বিভিন্ন কর্মশালায়। যাত্রা অ্যাকাডেমি তো বটেই, শ্যামবাজার নাট্যচর্চা কেন্দ্রের মতো নানা কর্মশালায় প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে তাঁদের।
যাত্রার বিষয়বস্তু বদলেছে এখন। তা মূলত দর্শকদের চাহিদার জন্যেই। তবে বাজেটের ভূমিকাও অস্বীকার করতে পারছেন না যাত্রাজগতের সঙ্গে যুক্ত কয়েক দশকের অভিজ্ঞ শিল্পীরা। পশ্চিমবঙ্গ যাত্রা সম্মেলনের যুগ্ম সম্পাদক তাপস দাস ও রূপকুমার ঘোষ থেকে সংগ্রামী যাত্রা প্রহরীর সভাপতি মঞ্জিল ব্যানার্জি— সকলেরই বক্তব্য, ঐতিহাসিক বা পৌরাণিক গল্পের জন্য মঞ্চ সাজাতে যে খরচ হয়, তা এখন আর সম্ভব নয়। অভিনেতা–অভিনেত্রীদের মেক–আপের ধরন, গুণমান পাল্টেছে। সেখানেও বেড়েছে খরচ। অথচ একটা ঐতিহাসিক গল্প নিয়ে আসর সাজাতে প্রয়োজন বিশেষ সাজপোশাক। পাশাপাশি ধর্মীয় কয়েকটি সংগঠন ছাড়া পৌরাণিক গল্পে আগ্রহী হচ্ছেন না দর্শকরা। তাই সাধারণ মানুষের মনের কাছে পৌঁছোতে বেছে নেওয়া হচ্ছে দৈনন্দিন জীবনের গল্পকেই। তাপস দাসের কথায়, যাত্রা শুধু বিনোদন নয়, লোকশিক্ষার মাধ্যমও বটে!‌ তাই মাদকাসক্তি, করোনা সচেতনতা–সহ নানা বিষয়ে বার্তা দেওয়া হচ্ছে যাত্রার মধ্যে দিয়ে।

S‌nake: বিষধর সাপের মুখোমুখি হয়েও ডাব পেড়ে চলেছেন ডাবচাচারা


প্রতি বছর যাত্রা অ্যাকাডেমিতে ৫০ জন নিয়ে হয় কর্মশালা। আর সেখানেই অভিনয় শিখতে বিভিন্ন জেলা থেকে আসছেন নতুন ছেলেমেয়েরা। পায়ের তলার জমি তৈরি হয়ে গেলে সফলভাবে কাজ করছেন বিভিন্ন নামী যাত্রাদলে। তাঁদের নাম উঠে আসছে মুখ্য চরিত্রেও। পশ্চিমবঙ্গ যাত্রা সম্মেলনের সভাপতি সমীর সেন, দল পরিচালক রাম কুণ্ডু, সংগ্রামী যাত্রা প্রহরীর চেয়ারপার্সন অমিতকান্তি ঘোষ, নাট্যকার ও অভিনেতা অনল চক্রবর্তী, অভিনেত্রী কাকলি চৌধুরির মতো কয়েক দশকের অভিজ্ঞ ব্যক্তিত্বরা মনে করছেন, ধৈর্য আর দক্ষতাই হল যাত্রাদলে টিকে থাকতে পারার মূল অস্ত্র। সিনেমা, থিয়েটার, টিভি ধারাবাহিকের জগৎ থেকে যাত্রায় নাম করেছেন, এমন অভিনেতা–অভিনেত্রীর সংখ্যা কম নয়। তবে যাঁরা নতুন আসছেন, তাঁদের ১০০ শতাংশ দিয়েই প্রমাণ করতে হবে নিজেদের।‌‌‌‌

আকর্ষণীয় খবর