অলোকপ্রসাদ চট্টোপাধ্যায়: একা মানুষের জন্যে কখনও কখনও তার অতীত থাকে। হারিয়ে যাওয়া কোনও প্রিয়জন থাকে। ছুঁয়ে দেখার মতো কোনও স্মৃতি থাকে, যা বর্তমানের অনেক অন্ধকারেও ম্লান হয় না, উজ্জ্বলতা হারায় না।
তেমনই এক একা মানুষ নরসিংহ, যাকে কেন্দ্রে রেখে একটা চলচ্চিত্র নির্মান করেছেন ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্ত। গানের জগতের মানুষ ইন্দ্রদীপ। এই ছবিও তাই একটা গভীর সুরকে ধরে এগিয়ে যায়। সে সুর একাকীত্বের। ‘‌কেদারা’ সেই সুরটাই শুনিয়েছে গভীরতার সঙ্গে।
চরিত্রের নাম নরসিংহ। একদা হরবোলা। যে শিল্প আজ প্রায় অবলুপ্ত। প্রায় নরসিংহের মতোই ‘‌বাতিল’‌। সমাজ তাকে ‘‌বাতিল’‌ করে দিলেও তার ঠাকুমা তার ‘‌বাবাই’‌কে বাতিল করে দেয়নি। রোজ তার সঙ্গে কথা বলে। তাকে ভাত রেঁধে দেয়। চা করে দেয়। ‘‌মামলেট’‌ বানিয়ে দেয়।
কিন্তু, সেই ঠাকুমা তো নেই। হরবোলা নরসিংহই ঠাকুমার কণ্ঠে কথা বলে নিজের সঙ্গে।
দ্রুত এগিয়ে যাওয়া সমাজে নরসিংহ-‌র একমাত্র বন্ধু ‘‌কেষ্ট’‌। সে আবার বাতিল জিনিসপত্র কিনে এনে বেচে দেয়। সমাজে কোনঠাসা‌‌ নরসিংহ। চায়ের দোকানের ছেলেবুড়োরাও ভেংচি কাটে। কিন্তু কেষ্ট একদিন একটা কেদারা এনে দেয় নরসিংহকে। ঘরে ভাঙাচোরা প্লাস্টিকের চেয়ারের বদলে রাজসিংহাসন?‌ সেখানে বসে সে কী অপার্থিব আনন্দ নরসিংহের। এবং মিইয়ে পড়া ঠাকুমার ‘‌বাবাই’‌ সত্যি সত্যিই যেন এবার নরসিংহ হয়ে ওঠে।
ঠাকুমা নেই, ছেড়ে গেছে স্ত্রী ও সন্তান, সমাজেও প্রায় একঘরে একটা একা মানুষ এবার জেগে ওঠার চেষ্টা করে।
সত্যিই কি তার জেগে ওঠাকে মেনে নেবে হিসেব-‌নিকেশের চারপাশ?‌ এই সংসার?‌ এই দাপুটে সমাজ?‌
এক গভীর সুরে একাকীত্বকে ধরতে চেয়েছেন পরিচালক ইন্দ্রদীপ। আর, তাঁর এই সুরকে নিপুনভাবে কণ্ঠে ধরেছেন ‘‌নরসিংহ’‌ কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়। অসাধারণ তাঁর একাকীত্ব উদযাপন। তাঁকে যোগ্য সঙ্গত করেছেন ‘‌কেষ্ট’‌ রুদ্রনীল ঘোষ। ভাল অভিনয় করেছেন বিদীপ্তা চক্রবর্তী ও মৌসুমী সান্যাল দাশগুপ্ত। চায়ের দোকানের নিয়মিত আড্ডাবাজ হিসেবে ইন্দ্রনীল রায়ও মনে থেকে যাবেন।
এছবির চিত্রনাট্য ও সংলাপে শ্রীজাতর দক্ষতা উল্লেখযোগ্য। সঙ্গীতে অরিজিৎ সিং ছবির মেজাজকে ছুঁয়ে আছেন। শুভঙ্কর ভড়ের ক্যামেরা প্রশংসনীয়। সুজয় দত্ত রায়ের সম্পাদনাও উল্লেখের দাবি রাখে।
প্রথম ছবিতেই নিজস্ব পথে হেঁটেছেন ইন্দ্রদীপ। ফর্মুলার ধার ধারেননি। ছুঁতে চেয়েছেন এক শিল্পীর একাকীত্বকে। এক মানুষের একাকীত্বকে। সেই একা মানুষের সুর যখন আমাদের স্পর্শ করে, তখন, সেই মানুষটা আর একা নয়, এটাই মনে হয়। অন্তত, সেই একা মানুষটাকে এই কথাটা জানাতে বড্ড ইচ্ছে করে।‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top