আজকাল ওয়েবডেস্ক: একসময় ছিল ঢেউ খেলানো চুল। চকচকে চোখ দেখে কে না তাঁর প্রেমে পড়েছে!‌ রোগ ধরল শরীরে। কর্কট। স্বাস্থ্য উদ্ধারে চেহারা হঠাৎ পাল্টে গেল। সবারই যায়। কিন্তু মন?‌ পাল্টায় নিশ্চয়ই। জোর বাড়িয়ে দেয়। অনেক অনেক। ক্যান্সারের যুদ্ধ জয় করে সেই মারণ রোগ কীভাবে তাঁর জোর বাড়িয়েছে, সে কথা ফের মনে করিয়ে দিলেন মনীষা কৈরালা। ১ ডিসেম্বর তিনি টুইটারে একটি পোস্ট শেয়ার করেছিলেন। কোলাজ করা দুটো ছবি। বাঁদিকের ছবিতে তিনি হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে আছেন। ৪–৫টা নল তাঁর শরীরে। ফ্যাকাশে হয়ে আছে মুখ। আর ডানদিকে নেপালের বরফাবৃত পাহাড়ের সামনে তিনি দাঁড়িয়ে আছেন নতুন উদ্যমে। চোখ মুখ উজ্জ্বল। উপরে লিখলেন, ‘‌জীবনের দ্বিতীয় সুযোগের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। সুপ্রভাত বন্ধুরা। এই জীবনটা বড়ই সুন্দর। আনন্দে থাকার ও সুস্থ থাকার এই সুযোগ!‌’‌ এই দুটি ছবির কোলাজ আর দুটো লাইনের মধ্যে দিয়ে অনেক কিছু বলতে চাইলেন তিনি। আর এই পোস্টই আজ হয়ত জোর দিচ্ছে হাজার হাজার ক্যান্সার আক্রান্তের মনে। কারণ, মনীষা বুঝিয়ে দিচ্ছেন, রোগ এক সাময়িক লড়াই মাত্র। জীবন অনেক বড়। 
২০১২ সাল থেকে ‘‌বম্বে’ ছবির এই‌ অভিনেত্রী ওভারিয়ান ক্যান্সারে ভুগছিলেন। সুস্থ হয়ে তিনি লেখেন ‘হিলড্:‌ হাউ ক্যান্সার গেভ মি আ নিউ লাইফ’। সেখানে হয়ত লড়াইয়ের অনেক কথা লেখা আছে। এছাড়াও একটি সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছিলেন, ‘‌ক্যান্সার ধরা পড়ার পর আমি মানসিকভাবে‌ ধসে গিয়েছিলাম। কিন্তু এখন সেই সময়ের কথা ভাবি, মনে হয় এই রোগটা আমায় নতুন জীবন দিয়েছে। জীবনের সমস্ত ঘটনাকে অন্যভাবে দেখার চোখ দিয়েছে আমায়। অন্য আলো, অন্য আশা। আমি বুঝতে শিখেছি যে জীবনে সুস্থ থাকার প্রয়োজনীয়তা কতটা!‌’‌    ‌‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top