আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‘‌ডানপন্থীরা যেভাবে ইতিহাসকে নিজেদের প্রয়োজনমতো অদলবদল করে নিচ্ছে, তাতে চিন্তায় পড়ে যাচ্ছি’‌ জানালেন ‘‌বজরঙ্গী ভাইজান’ ছবির পরিচালক কবির খান। একটি সাক্ষাৎকারে তাঁর নতুন ওয়েবসিরিজ ‘‌দ্য ফরগটেন আর্মি’ নিয়ে কথা বলতে গিয়ে ভারতের সমকালীন রাজ‌নৈতিক পরিস্থিতির কথা উঠলে তিনি নিজের মনের কথা বললেন। তাঁর এই নতুন কাজটি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বোসের ভারতীয় জাতীয় সেনার ইতিহাস নিয়ে। সেই ইতিহাস নিয়ে কথা বলতে বলতেই তিনি বললেন, ‘‌ভারতের ইতিহাসে যত রাজবংশ এসেছে বলে আমরা জানি, তারা কখনও ধর্মের কারণে একে অপরের গদি ছিনিয়ে নিতে চায়নি। যা যুদ্ধ হয়েছে, তা শুধুমাত্র সাম্রাজ্য বিস্তারের উদ্দেশ্যে। এখন যদি ডানপন্থীরা সাধারণ মানুষকে ভুলিয়ে রাখার জন্য ইতিহাসকে ঘুরিয়ে দেয় তাহলে সেটা দেশের পক্ষে মোটেই স্বাস্থ্যকর নয়।’‌ বিজেপির সমর্থকেরা ‘‌হিন্দুরাষ্ট্র’‌ প্রতিষ্ঠার সপক্ষে যুক্তি দেওয়ার জন্য হামেশাই মুঘলদের বহিরাগত এবং মুসলমান রাজাদের হিংসার কথা বলেন। পরিচালক সেই স্বভাবের কথাই বলতে চাইলেন এই সাক্ষাৎকারে। ইতিহাস থেকে তুলে আনলেন কিছু দৃষ্টান্তের কথা। বললেন, যুদ্ধ হয়েছে দিল্লি নিয়ে। কে পাবে দিল্লি?‌ বাবর কামান দাগলেন ইব্রাহিম লোদির বিরুদ্ধে। সেও একজন মুসলিম। কোনও রাজপুত হিন্দু নন। লোদিরা দিল্লি কার থেকে আদায় করেছিল?‌ তুঘলকদের থেকে। তাও মুসলিম শাসক। ধর্ম কোথায় এখানে?‌ কিন্তু এখন একটা রাজনৈতিক দল তাদের কাজ হাসিল কারর জন্য ইতিহাসকে নিজেদের সুবিধা মতো অদল বদল করে দেওয়ার চেষ্টা করছে। আর তা হচ্ছে কেবলমাত্র ধর্মের ভিত্তিতে মানুষকে আলাদা করার জন্য। ভয়ানক ক্ষতি করছে তারা। তার আক্ষেপ, ‘‌যেভাবে এরা নেতাজিকেও নিজেদের কাজে ব্যবহার করছেন, নেতাজি বেঁচে থাকলে তিনি কষ্ট পেতেন। তিনি কখনও কোনওরকম সাম্প্রদায়িকতাকে সমর্থন করেননি। কিন্তু এখন এমনই অবস্থা, মানুষ সোশ্যাল মিডিয়ায় একটা মিথ্যে বারবার বলে বলে সেটাকেই সত্যি বানিয়ে তুলছে। আর দুঃখের বিষয় এটাই যে, এখন সোশ্যাল মিডিয়াই অন্যতম তথ্যের উৎস হিসেবে দেখে মানুষ।’‌


‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top