আজকাল ওয়েবডেস্ক: নতুন বছরে চেহারা বদলে গেল বাংলা ব্যান্ড ক্যাকটাসের। নতুন চেহারায় ২৬ জানুয়ারি তাদের প্রথম কনসার্ট। সিধুর সঙ্গে ফের জুটি বেঁধেছেন পটা। প্রায় প্রথম দিন থেকে ক্যাকটাসের সদস্য বাজি আর নেই। তাঁর জায়গায় ড্রামস বাজাচ্ছেন অর্ণব দাশগুপ্ত। গিটার বাজাচ্ছেন বৈদুর্য এবং সম্রাট এবং বেস গিটারে প্রশান্ত।
অন্যান্য সদস্যরাও প্রায় সবাই নতুন। বেসিস্ট প্রশান্ত মাহাতোই একমাত্র চেনা মুখ। অঞ্জন দত্তর সঙ্গে পারফর্ম করেন তিনি। হঠাৎ কেন বদলে গেল ক্যাকটাসের খোলনলচে? সিধু জানিয়েছেন, বহু দিন কোনও শো নেই। ২০১৯-এর ডিসেম্বরে শেষ স্টেজ শোর পর থেকে কারও পাত্তা পাওয়া যাচ্ছিল না। তাই এই বড়সড় সিদ্ধান্ত নিতে হল, জানিয়েছেন সিধু। 
এত পুরনো সদস্য বাজি নেই কেন? সিধু জানিয়েছেন, বাজির সঙ্গে তাঁর এক আইনি চুক্তি ছিল, যার মেয়াদ শেষ হয়েছে ২৪ জানুয়ারি। সিধু এও জানিয়েছেন, এক বছর ধরে দলের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে বাজির সঙ্গে আলোচনা করতে চেয়েছেন তিনি। কিন্তু কোনও ফল হয়নি। বাধ্য হয়েই তাঁকে আইনি নোটিশ পাঠাতে হয়। সিধুর কথায়, 'আমি কাউকে দোষ দিতে চাই না বা কারও সঙ্গে ঝামেলা করতে চাই না। কিন্তু ক্যাকটাস আমার জীবনে ভীষণ আবেগের জায়গা। এটা ছেড়ে দিতে পারি না।' এদিকে ব্যান্ডে ফিরে খুশি পটা। বলছেন, 'এই সেট আপে আমি খুশি। যেসব গান গাইতে ভালবাসি সেগুলো আবার গাইতে পারব, এটাই সবচেয়ে আনন্দের।'
পটার ফিরে আসা নিঃসন্দেহে আনন্দ দেবে ক্যাকটাস ভক্তদের। অতীতে বেশ কয়েকবার তিনি ব্যান্ডে ঢুকেছেন আবার বেরিয়েছেন। নিজস্ব প্রোজেক্ট করেছেন বেশ কিছু, যা নিয়ে মঞ্চে পারফর্মও করেছেন। সাম্প্রতিক কালে সিধুর সঙ্গে 'এসো বন্ধু' প্রোজেক্টে কাজ করছিলেন পটা। ডিজিটাল শোতে ক্যাকটাসের গানও গাইছিলেন তাঁরা। আবার একসঙ্গে হলেন দুই গায়ক।
 

জনপ্রিয়

Back To Top