সোমনাথ গুপ্ত: আবৃত্তির মঞ্চে তিনি প্রবল জনপ্রিয়। এই সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় আবৃত্তিশিল্পী বললে একটুও বাড়িয়ে বলা হবে না। সেই ব্রততী বন্দ্যোপাধ্যায় এবার নতুন করে নিজেকে আবিষ্কারের চেষ্টায় এলেন থিয়েটারের মঞ্চে। নাটকের নাম ‘‌প্রত্যাশা’‌। প্রয়াত চন্দ্রা দস্তিদারের লেখা এই নাটক এখন সম্পাদনা করে পরিচালনা করছেন তাঁরই কন্যা খেয়ালী দস্তিদার। ‘‌গেমপ্ল্যান’‌-‌এর প্রযোজনায় মঞ্চে এল এই নাটক। উদ্দীপ্ত ব্রততী বন্দ্যোপাধ্যায়।
• আবৃত্তি আপনার চেনা ক্ষেত্র। সেখানে আপনি প্রবল জনপ্রিয়। থিয়েটারে আসার ঝুঁকিটা কি জেনেবুঝেই নিলেন, নতুন একটা ক্ষেত্রকে আবিষ্কার করবেন বলে?‌
•• জীবনে ঝুঁকি তো নিতেই হয়। নাটক নিয়ে আমার আগ্রহ বরাবরই ছিল। প্রচুর নাটক দেখিও। আমার মনে হয় একটা শিল্পের জন্যে অন্য সব শিল্পের প্রতি আগ্রহ থাকাটা জরুরি। এতে আদান-‌প্রদান হয়। সমৃদ্ধ করা যায় নিজেকে। নাটক থেকেও তো আমি অনেক কিছু নিয়েছি আবৃত্তির জন্যে। এবার সরাসরি নাটকের মঞ্চে এসে নিজেকেই বরং আবিষ্কারের চেষ্টা করছি।
• আগে নাটক করার প্রস্তাব পাননি?‌
•• হ্যাঁ, আগেও প্রস্তাব পেয়েছি নাটক করার। সময় এবং আগ্রহ দুটোই কম ছিল। এখনও সময়ের টানাটানি থাকলেও, আগ্রহটা বেড়েছে। ভাবলাম, দেখি নিজেকে আবিষ্কার করে।
• নিজেকে আবিষ্কার করতে পারলেন?‌
•• (‌হাসতে হাসতে)‌ একটা মাত্র শো হয়েছে। আবিষ্কারে সময় লাগবে। তবে, নাটকে আমি শিক্ষার্থী হিসেবেই নিজেকে দেখি। শিখছি। সব্যসাচী চক্রবর্তীর মত একজন দক্ষ অভিনেতার সঙ্গে মঞ্চে অভিনয় করছি, এটাই তো যথেষ্ট আমার কাছে। খেয়ালী দস্তিদার আছেন।
• নাটকের মঞ্চকে কখনও আবৃত্তির মঞ্চ মনে হচ্ছে?‌
•• অভিনয় করার সময় মনে হচ্ছে না। কিন্তু সংলাপ বলার সময় এখনও মাঝে মাঝে দর্শকদের দিকে তাকিয়ে কথা বলে ফেলছি। এটা বুঝতে পেরেছি। শুধরেও নেব। কিন্তু সংলাপ বলাটা মোটেই আবৃত্তির মতো করা যাবে না। নাটকের সংলাপ তো জীবনেরই সংলাপ।
• এখানে তো আপনিই প্রধান চরিত্রে?‌
•• হ্যাঁ, লিড রোল বলেই তো আরও চ্যালেঞ্জিং। সেজন্যেই রাজি হয়েছি।
• লিড রোল বলেই শুধু রাজি হয়েছেন?‌
•• লিড রোলটা একটা কারণ। আর একটা কারণ, এই চরিত্রটার সঙ্গে নিজেকে ‘‌আইডেন্টিফাই’‌ করতেও পেরেছি।
• নাটকে অভিনয়ের প্রস্তাবটা কে দিলেন?‌
•• ‘‌গেমপ্ল্যান’‌ হচ্ছে মালবিকা ও জিৎ ব্যানার্জীর সংস্থা। ওদের পক্ষ থেকে রামাদিত্য রায় আমাকে এই নাটকে অভিনয়ের কথা বলেন।
• প্রথম শো হল ‘‌বিড়লা সভাঘরে’‌। পরেরটাও তো ওখানেই। এই নাটক তো গ্রুপ থিয়েটারের আদলে হচ্ছে না। বরং কর্পোরেট আদলে হচ্ছে বলে মনে হয়।
•• হ্যাঁ, সেটাই হচ্ছে। খুবই পেশাদার ভাবনা থেকেই ‘‌প্রত্যাশা’‌ করা হচ্ছে।
• কল শো করবেন?‌
•• প্রচুর ডাক আসছে। বিদেশ থেকেও।
• করবেন নিশ্চয়ই?‌
•• বেছে বেছে শো নেওয়া হবে। করব বলেই তো এসেছি।
• কিন্তু আবৃত্তিকার, প্রশিক্ষক ব্রততী বন্দ্যোপাধ্যায় এতটা সময় দিতে পারবেন থিয়েটারকে?‌
•• (‌চিন্তিত ভঙ্গীতে)‌ সেটাই সমস্যা। সত্যিই সমস্যা। আমি চেষ্টা করছি কীভাবে পরিস্থিতি সামলে দুটো ক্ষেত্রেই কাজ চালাতে পারি।
• আবৃত্তি করতে করতে ক্লান্ত হয়েই কি নাটকে এলেন?‌
•• আবৃত্তি করতে আমি কখনও ক্লান্ত হইনি, হবও না। কিন্তু একটা মাধ্যমে কাজ করতে করতে একটা চেঞ্জ, একটা পরিবর্তনও দরকার হয়। দরকার হয় অন্য মাধ্যমে নিজেকে আবিষ্কার করা।
• একটা সিনেমাতেও তো আপনি অভিনয় করেছিলেন?‌
•• হ্যাঁ। ‘‌রঙীন গোধূলি’‌। ওই মাধ্যমটাও জানার ইচ্ছে হয়েছিল। এখন থিয়েটার মাধ্যমটাকে ভেতরে ঢুকে দেখতে চাইলাম। হয়ত আমার আবৃত্তি এর ফলে উপকৃত হবে। হয়ত কিছুটা হলেও অন্য মাত্রা যোগ হবে আমার আবৃত্তিতে। দেখা যাক।
নাটকের ব্রততী আবিষ্কার করুন নিজেকে। আর, দর্শকরা আবিষ্কার করুন নাটকের ব্রততীকে। আমাদের শুভেচ্ছা।‌

‘‌প্রত্যাশা’‌ নাটকে ব্রততী

জনপ্রিয়

Back To Top