‌বিনোদনের প্রতিবেদন:‌ আসছে মহালয়া। আর মহালয়ার সেই ভোরে আমাদের ঘুম ভাঙে বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রর উদাত্ত গলার চণ্ডীপাঠে। সঙ্গে আছে পঙ্কজকুমার মল্লিকের সুরে বিখ্যাত শিল্পীদের গান। এবার ছবিতে এই বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রর জীবনকে তুলে আনছেন অয়ন মুখার্জি। এর আগে একটি শর্ট ফিল্ম তৈরি করেছিলেন অয়ন। এটাই তাঁর দ্বিতীয় ছবি। ছবিটি মুক্তি পাবে ইউটিউব চ্যানেলে। ঠিক মহালয়ার দিন এই ছবি দেখা যাবে ‘‌হালুম’‌ চ্যানেলে।
পরিচালক জানালেন তাঁর দীর্ঘ পাঁচ বছরের গবেষণার ফসল এই ছবি। ছবিতে যেমন উঠে এসেছে বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রর জীবন তেমনি তার পাশাপাশি এসেছে ‘‌মহিষাসুর মর্দিনী’‌ রচনার বিশদ ইতিহাস। সেই সঙ্গে রয়েছে আকাশবাণীর ১০০ বছরের ইতিহাসও। ‘রেলওয়ের একদা চাকুরে বীরেন্দ্রকৃষ্ণ কীভাবে কিংবদন্তী বীরেন্দ্রকৃষ্ণ হয়ে উঠলেন ও তাঁর সমসাময়িক ইতিহাস ধরা হয়েছে এই ছবির মধ্যে দিয়ে’‌, জানালেন পরিচালক অয়ন। জানালেন, এই ছবিতে রয়েছেন এই অনুষ্ঠানের সঙ্গে জড়িত সব কিংবদন্তী ব্যাক্তিরাই—যেমন পঙ্কজকুমার মল্লিক, প্রেমাঙ্কুর আতর্থি, বাণীকুমার, হেমন্ত মুখোপাধ্যায় প্রমুখ। এই প্রত্যেকটি চরিত্রই জীবন্ত হয়ে এসেছে পর্দায়। অভিনয় করেছেন কলকাতা ও হাওড়ার নাট্যকর্মীরা। বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রর চরিত্রে অভিনয় করেছেন শৌনক সামন্ত। পঙ্কজকুমার মল্লিকের ভূমিকায় নিলয় দে, বাণীকুমার হয়েছেন বিমান চন্দ্র ও হেমন্ত মুখোপাধ্যায় হয়েচেন প্রসূন ব্যানার্জি। পরিচালককে গবেষণায় সাহায্য করেছেন আকাশবাণীর সাংবাদিক বরুণ মজুমদার। সঙ্গীত পরিচালনায় আছেন দীপঙ্কর চট্টোপাধ্যায়। এই ছবির আরও একটা আকর্ষন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের কণ্ঠে ভাষ্যপাঠ। তাঁর কণ্ঠে পাওয়া যাবে ছবির বিভিন্ন ঘটনার বিবরণ।

বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রর চরিত্রে শৌনক সামন্ত।

জনপ্রিয়

Back To Top