Amitabh Bachchan; অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না বলিউড 'শাহেনশাহ'র কন্ঠ ও ছবি! হাইকোর্টের নয়া রায়

সংবাদসংস্থা, মুম্বই; দিল্লী হা্ইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন স্বয়ং অমিতাভ বচ্চন।

কী এমন সমস্যায় পড়লেন তিনি? বলিউডের 'অ্যাংরি ইয়ং ম্যান' সম্প্রতি নাজেহাল হয়েছেন বিজ্ঞাপনের ভিড়ে। এবং সেই সূত্রেই তিনি হাইকোর্টের সাহায্যপ্রার্থী।

ঠিক কী হয়েছে তাঁর সঙ্গে? অমিতাভ বচ্চন বিনোদন জগতের সব থেকে বড় নাম। বিজ্ঞাপনে এই বড় 'নামে'র গুরুত্ব অনেক। বড় নাম সহজেই ভরসা জাগায় আমজনতার মনে। ফলে নানা বিজ্ঞাপন সংস্থা বিনোদন জগতের মানুষদের সঙ্গে সংযুক্ত হন প্রচারের আশায়। কিন্তু অনেক ব্যবসা ও সংস্থা অনেক ক্ষেত্রেই সেলিব্রিটিদের অনুমতি ছাড়াই নিজেদের পণ্য তাঁদের ছবি, কন্ঠ ব্যবহার করেন অন্যায় ভাবে। সেই সুবাদেই সরব হয়েছেন 'বিগ বি'।

অমিতাভ বচ্চন সেলিব্রিটি, মানুষও। তাঁরও আছে স্বাভাবিক অধিকার, 'পাবলিসিটি রাইট'। 'পিঙ্ক' ছবির দীপক সহগল (অমিতাভ বচ্চন) এর স্বপক্ষে সরব হয়েছেন আইনজীবি হরিশ সালভে। পাশে দাঁড়িয়েছেন আইনজীবি প্রবীন আনন্দ'ও। সালভে'র কথায়, কিছু মানুষ নিজেদের ব্যবসায় লাভের আশায় ব্যবহার করছেন 'কৌন বনেগা ক্রোড়পতি'র লোগো। যেখানে উজ্জ্বল ভাবে স্পষ্ট 'বিগ–বি'র ছবি। গুজরাটের এক লটারি সংস্থাও একই ভাবে ব্যবহার করেছে 'শাহেনশাহ'র ছবি। আবার অনেকেই আছেন যাঁরা ব্যবহার করছেন অভিনেতার কন্ঠ। 'অমিতাভ বচ্চন ভিডিও কল' নামে একটি অ্যাপ আছে যেখানে সাধারণ মানুষ ফোন করলেই কথা বলতে পারবেন এমন একজন মানুষের সঙ্গে তিনি কথা বলছেন অবিকল 'শাহেনশাহ'র কন্ঠে। অথচ অভিনেতা অবগতই নন এসব কর্মকান্ডের সঙ্গে। এছাড়াও অনেক ডোমেইন চলছে 'বিগ–বি'র নামে, যা একেবারেই আইন সম্মত নয়। সম্পূর্ণ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়েই 'বিগ– বি' হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন।

সেলিব্রিটিদের অনৈতিক ভাবে ব্যবহার করা, এ নিয়ে সরব হয়েছেন অনেকেই। কিছুদিন আগেই অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র নিজের ফেসবুক পেজে স্ক্রিনশট শেয়ার করে জানিয়েছিলেন এক সংবাদ সংস্থার কথা, যারা অনুমতি ছাড়াই অভিনেত্রীর নাম ব্যবহার করে পাঠকের মন জয়ের চেষ্টা করেছেন। তিনি আইনি পদক্ষেপ না নিলেও, সরব হয়ে বিষয়টি নিয়ে নিজের বিরক্তি প্রকাশ করেছিলেন।

হাইকোর্টের রায়ে অমিতাভ বচ্চনের এই ঘটনাও এখন সকলের সামনে। অভিনেতার স্বপক্ষে আইনজীবি সালভে, যাবতীয় বিষয় নিয়ে 'পাবলিসিটি পার্সোনালিটি রাইটস' মামলা রজু করেছেন।

আকর্ষণীয় খবর