সম্রাট মুখোপাধ্যায়: বছরে দু’‌খানা করে হিট দেওয়া মোটামুটি অভ্যাস করে ফেলেছেন আয়ুষ্মান খুরানা। পরপর তিন বছর টানা ব্যাপারটা ঘটল।
২০১৭’‌য় ‘‌মেরি পেয়ারি বিন্দু’‌ ছবিতে আয়ুষ্মানের অভিনয় দর্শক–‌প্রশংসা পেলেও ছবি বক্স–‌অফিস আনুকূল্য পায়নি। কিন্তু সেই আক্ষেপ মুছে যায় বছরের শেষ দিকে এসে। পরপর জোড়া হিট আসে আয়ুষ্মানের ঘরে। ‘‌বরেলি কি বরফি’‌ আর ‘‌শুভ মঙ্গল সাবধান’‌।
২০১৮। এবার সাফল্য একেবারে একশো শতাংশ। দু’‌য়ে দুই। এবং দু’‌টোই মেগা হিট। ‘‌অন্ধাধুন’‌। ‘‌বাধাই হো’‌। আয়ুষ্মান এখনও পারিশ্রমিক নেন অল্প। ফলে তাঁর ছবির প্রযোজনা ব্যয় কম থাকে। ‘‌অন্ধাধুন’‌ তৈরি হয়েছিল মাত্র ৩২ কোটি টাকায়!‌ আর সেই ছবি ব্যবসা করল কিনা ৪৫৬ কোটি টাকা !‌!‌ প্রায় ১৫ গুণ লাভ !‌!‌ ভারতীয় সিনেমার ইতিহাসে লাভের পরিষংখ্যানে একটি ‘‌মাইলস্টোন’‌।
পাশাপাশি ‘‌বাধাই হো’‌। ২৯ কোটি টাকায় তৈরি ছবি। ব্যবসা পেয়েছে ২২২ কোটি টাকার। অর্থাৎ দু’‌টো ছবি মিলিয়ে আয়ষ্মানকে ঘিরে গত বছর বলিউড বাজারে ব্যবসা হয়েছে পৌনে সাতশো কোটি টাকার !‌!‌ আর এই ব্যাপারটাই আমির–‌সলমন–‌অক্ষয়দের সাম্রাজ্যের ভবিষ্যৎ উত্তরসূরি হিসেবে এক নম্বরে এনে দিয়েছে আয়ুষ্মানকে। সঙ্গে গত বছর জাতীয় পুরস্কার আর ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দুই বিপরীত ধর্মী আসরেই আয়ুষ্মানের ছবির দাপট বাড়তি পালক জুগিয়েছে তাঁর মুকুটে।
এ বছরও দাপট অব্যাহত। ৩০ কোটির ‘‌আর্টিকেল ১৫’‌ ব্যবসা করেছে একশো কোটির কাছাকাছি। একই প্রযোজনা ব্যয়ের ‘‌ড্রিমগার্ল’‌ একটা উইক এন্ডেই দ্বিগুণ ব্যবসা করে ফেলেছে ৬০ কোটির। ফলে এবারও দু’‌টো ছবিই হিট। আর ‘‌আর্টিকেল ১৫’ ‌তো অভিনেতা হিসেবে অন্য মর্যাদা এনে দিয়েছে আয়ুষ্মানকে।
এখানেই শেষ নয় এ বছরের উড়ান। ‘‌সিট বেল্ট’‌ বাঁধুন। ‘‌বালা’‌ আসছে নভেম্বরেই। কলকাতার পরিচালক পাভেল এ ছবির কাহিনিকার। যথারীতি এ ছবিতেও আয়ুষ্মানের ‘‌হটকে’‌ ধরনের চরিত্র। এমন এক ছেলের চরিত্র, কম বয়েসেই যার টাক পড়ে গেছে মাথায়। এই ছবির কাস্টিংয়ে আছে দু’‌টো মজার ব্যাপার। এক, এই ছবির দুই নায়িকা আয়ুষ্মানের অতীতের দুই হিট জুড়ি। ইয়ামি গৌতম (‌‌‘‌ভিকি ডোনার’‌)‌‌ আর ভূমি পেডনেকার (‌‌‘‌দম লাগাকে হেইশা’‌)‌‌। দুই, এই ছবিতে এক বিশেষ চরিত্রে দেখা যাবে শাহরুখ খানকে।
এই জোড়া–‌চমকের ব্যাপারটা আয়ুষ্মান ছাড়ছেন না ২০২০–‌তেও। ‘‌ডাউন টু আর্থ’‌ কমেডি বানানোয় সুজিত সরকার কতটা দক্ষ তা বোঝা গেছে ‘‌পিকু’‌ দেখে। তেমনই আর এক ছবি বানাচ্ছেন সুজিত। ‘‌গুলাবো সিতাবো’‌। মুক্তি পাবে আগামী বছরের এপ্রিলে। ‘‌পিকু’‌র মতোই এক আজব বৃদ্ধ চরিত্রে অমিতাভ বচ্চন। তাঁর মেক আপ করা ছবি দেখে সবার চোখ কপালে ওঠার জোগাড়। সুজিত জানিয়েছেন, জুহি চতুর্বেদীর (‌‌‘‌ভিকি ডোনার’‌–‌এর লেখক)‌‌  এই চিত্রনাট্য শুনেই অমিতাভের সঙ্গে আয়ুষ্মানের মুখই ফুটে উঠেছিল তাঁর মনে।
তবে তার আগে মার্চে মুক্তি পাচ্ছে ‘‌শুভ মঙ্গল জাদা সাবধান’‌। আগেরবার ছিল পুরুষত্ব–‌হানি। আর এবার বিষয় সমকামিতা। বলাই বাহুল্য সমকামী চরিত্রে আয়ুষ্মান স্বয়ং। ফলে ছবিতে নায়িকা নেই। বরং আছে ‘‌বাধাই হো’‌ তে আয়ুষ্মানের সেই ‘‌হিট’‌ করা বাবা–‌মা জুটি নীনা গুপ্তা আর গজরাজ রাও। যা পরিস্থিতি, তাতে আয়ুষ্মান ‘‌শক‌’‌ না লাগিয়ে ছাড়বে না দেখা যাচ্ছে।‌‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top