আজকাল ওয়েবডেস্ক: এতদিন কঙ্গনা রানাওয়াত বলিউডের সেলেবদের ওপর বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ তুলছিলেন, এবার তাঁর সঙ্গ দিতে ময়দানে নামলেন কঙ্গনার বোন রঙ্গোলী। তিনি আলিয়া ভাট এবং তাঁর পরিবারের দিকে কঙ্গনাকে অপমান করার অভিযোগ তুললেন। ‘‌গাল্লি বয়’‌ অভিনেত্রীর বাবা মহেশ ভাট নাকি কঙ্গনার দিকে চপ্পল ছুঁড়েছিলেন। এমনই দাবি রঙ্গোলীর। যদিও তিনি বেশ কিছু টুইটে আলিয়াকে সমর্থনও করেছেন। তবে তা শ্লেষাত্মক সুরে।   ‌
আলিয়া ভাটকে সমর্থন করে পেজ থ্রির চিত্র নাট্যকার নিনা অরোরা টুইট করে বলেন, ‘‌কঙ্গনা নিজের পুরনো কৌশল এবার বোনের হাতে দিয়েছেন। কঙ্গনা তো বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন, এখনও কেন তিনি আলিয়াকে হিংসা করছেন?‌ রঙ্গোলী এর জবাবে টুইটে বলেন, ‘‌আলিয়ার সুপার মডেলের মতো লুকস এবং ফ্যাশন সম্পর্কে এত জ্ঞান, কঙ্গনাতো হিংসা করবেই। প্রচুর জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন তিনি, তাঁর অভিনয় দক্ষতার সঙ্গে মজা করার স্টাইল, তাঁর বিরল বুদ্ধিমত্তা, বক্তব্য সবকিছু দেখেই কঙ্গনা ঈর্ষান্বিত।’‌ যদিও পরে রঙ্গোলী দাবি করেন যে তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে কঙ্গনাই এইসব টুইট করেছেন। কঙ্গনা–রঙ্গোলী কেন আলিয়াকে হিংসা করেন এ বিষয়ে আলিয়ার মা সোনি রাজদানকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, ‘‌আমি এ ধরনের পাগলামোতে কোনও মন্তব্য করতে চাই না।’‌
এর আগে সোনি রাজদান তাঁর কন্যা ও স্বামীকে কটাক্ষ করার জন্য দুই বোনের উদ্দেশ্যে টুইট করে বলেন, ‘‌মহেশ ভাটই সেই ব্যক্তি যিনি কঙ্গনাকে বলিউডে প্রথম ব্রেক দেন। আর তিনি কিনা তাঁরই স্ত্রী এবং কন্যার ব্যাপারে এ ধরনের কুরুচিকর কথা বলছে। কিন্তু এর পেছনে আসল কারণ টা কি?‌’‌ রঙ্গোলী এই টুইটের পাল্টা টুইট করে বলেন, ‘‌প্রিয় সোনি জি, মহেশ ভাট মোটেও কঙ্গনাকে বলিউডে সুযোগ দেননি, অনুরাগ বসু দিয়েছিলেন, মহেশ ভাট তাঁর ভাইয়ের প্রযোজনা সংস্থায় শুধু কাজ করতেন। দয়া করে নোট করবেন ওই প্রযোজনা সংস্থাটি মহেশ ভাটের নয়। ওহ লম্‌হের পর যখন কঙ্গনা ধোকা–তে অভিনয় করার জন্য অস্বীকার করেন, তখন মহেশ ভাট তাঁর অফিসেই কঙ্গনার ওপর চেঁচান।’‌ এই টুইটের পর যদিও পরে সোনি রাজদান তাঁর টুইট মুছে দেন। 


‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top