নারী ও এক বুড়ো মানুষের দুষ্টু স্বপ্ন!

রঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়

বেঁচে থাকলে বিখ্যাত লেখক ও চিন্তক খুশবন্ত সিং ১০০ পেরোতেন এই বছর। তাঁর জীবন ছিল রঙের তাস। তিনি তাঁর শেষ বই ‘‌অ্যাবসলিউট খুশবন্ত’‌–এ তাঁর জীবনের গোপন রঙের তাস সব প্রকাশ করে গেছেন। কী অসীম সাহসে তিনি বলেছেন তাঁর দুষ্টুমির গল্প। তাঁর জীবন একদিকে whisky–র উৎসব, অন্য দিকে শরীরের। লিখেছেন তিনি, জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত সূর্য ডুবলেই আমি চাইব আমার su‌ndowner সিঙ্গল মল্ট হুইস্কি। আর মৃত্যুর সময় আমার মুখে স্কচ দিও। অন্য কোনও পবিত্র পানীয় দিও না। যতো বুড়ো হচ্ছি, তত দুষ্টু সব দিবাস্বপ্ন দেখছি। নারীরা আসে আমার ভাবনায়। যা কিছু করতে চাই সব করি তাদের সঙ্গে। আমার মনের যৌবন যাচ্ছে না। যদিও দেহ আর পারছে না। কিন্তু মন পারছে যা খুশি করতে। আমার মনের মধ্যে বসে আছে আমার যৌবনের শয়তান। দিবাস্বপ্ন আমার শয়তানের বাড়ি। 
তবে এই বাড়ির মধ্যে একটা তফাৎ হয়ে গেছে। যখন যৌবন ছিল, যা ইচ্ছে শয়তানটা করতে পারত মেয়েদের সঙ্গে। এখন শয়তানটা শুধু ভাবে আর অসহায় হয়ে বসে থাকে দিবাস্বপ্নের বাড়িতে। একটা ভাল ব্যাপার আমাকে আনন্দ দিচ্ছে। সেটা হল, দুষ্টু ভাবনার ওপর কোনও সেন্সরশিপ নেই। কোনও বাধা নেই। কোনও লজ্জার ঢাকনা নেই। তাই একটা গোপন কথা বলে রাখি। বয়স বাড়লে যৌন তাড়না, সেক্স আর্জ কুঁচকি থেকে মাথায় ওঠে। তখন মাথার মধ্যেই অনেক উত্তেজনার কাজ করা যায়। সেটা বেশ মজার  ব্যাপার।
আর একটা জরুরি ব্যাপার জানাই। ভারতীয়রা এই ব্যাপারে খুব ন্যাকামি করে। আমি করছি না। সোজা কথা সোজা ভাবে বলছি। সত্যি কথাটা হলো, নারী পুরুষের সম্পর্কে রোমান্সের চেয়ে সেক্স এর গুরুত্ব বেশি। রোমান্স হলো একটা মিথ্যে ভান। ওটা ধুয়ে মুছে সাফ হয়ে যায়। যৌনতা রোমান্স কে ধাক্কা দিয়ে উড়িয়ে দেয়। সেই জন্য আমি রোমান্সকে পাত্তা দিইনা। রোমান্স মানে মিথের পিছনে সময় নষ্ট। মেয়েদের সঙ্গে আমার সম্পর্কে এই সময় নষ্টর সময় নেই। ফর মি, সেক্স ইজ মোর ইম্পর্ট্যান্ট!                                      আরও একটা কথা। খুব সুন্দরী মেয়েদের থেকে দূরে থাকাই ভালো। সুন্দরীরা শুধু শুনতে চায় সে কত সুন্দরী। আর বিছানায় বরফের মতো ঠাণ্ডা। আমার সময় নষ্ট করার সময় নেই। If she is not lively in bed, then there is no point। এবার নিজেকে একটি প্রশ্ন করেছেন খুশবন্ত। এই যে জীবনে এত নারীকে নিয়ে বিছানায় গেলাম, কখনও কি যৌন রোগের ভয় হয়েছে? উত্তর, না হয়নি। এই ব্যাপারে কোনও দুশ্চিন্তা নেই আমার। আমার দর্শন হচ্ছে, when in bed you just go for it। আমি ষাট বছরের বিবাহিত জীবন কাটিয়েছি, জানাচ্ছেন খুশবন্ত। সুখী বিবাহিত জীবন নয়। আমার বউ খুব সুন্দরী ছিলেন। এবং তাঁর জীবনে ছিল অন্য পুরুষ। এর পর আর কিছু বলার থাকতে পারে?