চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ফাইনালে পাকিস্তানের কাছে ভারত বিচ্ছিরিভাবে হারার পর দিলীপ বেঙ্গসরকার বলেছিলেন, খারাপ খেলেছে তাই হেরেছে, কিন্তু পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের সম্পর্কে আমাদের ক্রিকেটারদের বেশি জানার উপায় নেই, দুই দেশের মধ্যে সিরিজ না হওয়ায়। এক ফকর জামান শেষ করে দিয়ে গেলেন, ভারত উত্তর খুঁজে পেল না। পুরোপুরি ঠিক নয়। একই সমস্যা তো পাকিস্তানেরও। প্রশ্ন হল, কেন দুই দেশের মধ্যে সিরিজ হবে না?‌ ভারত–পাক সম্পর্ক কখনওই খুব ভাল হয়নি, তবু খেলা চলেছে।‌ বাল ঠাকরে মুম্বইয়ে পিচ খোঁড়ার হুমকি দিতেন, তবু হয়েছে কিছু ম্যাচ। দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার চেষ্টা তো সরকারি স্তরে চলতেই থাকে। ক্রিকেটে কোপ কেন?‌ ব্যাপারটা এমন নয় যে, ২০১৪ সালে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর এই আড়ি শুরু হয়েছে। ইউপিএ জমানাতেও ক্রিকেট সিরিজ বন্ধ দুই দেশের। অদ্ভুত ব্যাপার, হকিতে কিন্তু ভারত–পাকিস্তান খেলা বন্ধ হয় না। নানা টুর্নামেন্ট অন্য দেশের মাটিতে হয় বলে?‌ বেশ, ভারত–পাক ক্রিকেট সিরিজ তো নিরপেক্ষ দেশের মাটিতে, দুবাইয়েও হতে পারে, যেমন পাকিস্তান খেলে থাকে অন্যান্য দেশের বিরুদ্ধে। ইমরান খান একবার বলেছিলেন (‌তখনও রাজনীতিক হননি)‌, ‘‌আমাকে আর সানি গাভাসকারকে দায়িত্ব দেওয়া হোক, দুই দেশের সম্পর্ক আমরা ঠিকঠাক করে দিতে পারব।’‌ এত সহজ নয়। তবে, ক্রিকেটারসুলভ মনোভাব। এখন অবস্থা এত খারাপ যে, আইপিএল–এও কোনও পাকিস্তানি ক্রিকেটারকে খেলতে দেওয়া হয় না। শাহিদ আফ্রিদিকে দেখতে চান না ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীরা?‌ শুধু অন্য খেলা কেন, রাজনীতির মিষ্টি খেলাও তো থেমে নেই। ভারতের মন্ত্রী–আমলা–বুদ্ধিজীবীরা পাকিস্তানে যাচ্ছেন, পাকিস্তানিরা এখানে আসছেন। পাক প্রধানমন্ত্রীকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা বা তাঁর মেয়েকে আশীর্বাদ জানাতে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী লাহোর চলে যেতে পারছেন, আপত্তি শুধু ক্রিকেট খেলায়?‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top