‘মুসলিমদের ভারতে থাকার কী দরকার?‌ ওরা পাকিস্তান বা বাংলাদেশে চলে যাক!‌’‌ বললেন বজরং দলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, সঙ্ঘ পরিবারের উগ্র নেতা বিনয় কাটিয়ার। কখনও আমির খান, কখনও শাহরুখ খান, নির্দোষ মন্তব্য করেও আক্রান্ত হয়েছেন। সঙ্ঘবীরেরা ঝাঁপিয়ে পড়ে বলেছেন, চলে যাক পাকিস্তানে!‌ কোনও মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে নয়, কোনও নির্দিষ্ট ব্যক্তিকে নয়, বিনয় কাটিয়ার দেশ ছাড়ার নিদান দিলেন ভারতের ‘‌সব’‌ মুসলিমকে। পাকিস্তান, বাংলাদেশ ছাড়াও বহু দেশে মুসলিম আছেন। বজরং সভাপতি খরচ বাড়াতে চাননি, দূরে নয়, প্রতিবেশী দুই দেশকেই বেছে দিয়েছেন। দয়ামায়া আছে!‌ প্রশ্ন হল, এই কুৎসিত মন্তব্যের জন্য কাটিয়ার সম্পর্কে কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে কি বিজেপি?‌ যদি বলা হয় যে, বজরং দলের নেতা কী বললেন, তার দায় রাজনৈতিক দল হিসেবে বিজেপি–‌র না নিলেও চলবে, ভুল। কারণ, বিনয় কাটিয়ার বিজেপি–‌র সাংসদ। প্রত্যক্ষ দায় নিতেই হবে দেশের শাসক দলকে। ওদের অনেক নেতাই অনেক কথা বলেন, যা দেশের ধর্মনিরপেক্ষ গণতান্ত্রিক কাঠামোর সঙ্গে মানানসই নয়। সবার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে গেলে, অন্য কিছু করার হয়তো সময় পাবেন না নেতারা। ন্যূনতম প্রতিক্রিয়া তবু আশা করেন দেশের মানুষ। যেমন, অন্যায় মন্তব্যের জন্য তিরস্কার। জানিয়ে দেওয়া, এমন কথা বলা চলবে না। আরও মৃদু প্রতিক্রিয়ার পথও থাকে। যেমন, বলে দেওয়া, দল এমন মন্তব্যের বা বক্তব্যের সঙ্গে একমত নয়। না। কিছুই না। বিজেপি নেতারা যেন শুনতেই পেলেন না। কেন?‌ এইজন্য কি, যে, বিনয় কাটিয়ারের মতো লোকেদের কুমন্তব্যের জন্য ব্যবস্থা নিতে গেলে দলের মধ্যেই গন্ডগোল দেখা দেবে?‌ না কি, পরোক্ষ অনুমোদন আছে এমন সব মন্তব্যে, যেন বিষাক্ত সাম্প্রদায়িকতার আবহটা বজায় থাকে, যা ছাড়া বিজেপি–‌র নির্বাচনী জয় সম্ভব নয়?‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top