গরু উপকারী প্রাণী। ঘাস খায়, দুধ দেয়। কত মানুষ দুধ থেকে জীবিকা নির্বাহ করেন। সেই দুধ খেয়ে কত মানুষের বিশেষ পুষ্টি হয়। দুগ্ধজাত নানা খাদ্য উপাদেয়। গর্বের রসগোল্লা, সেটাও তো গরুর দুধের ছানা থেকে। গরু এখন পরম পূজনীয়। পৃথিবীর সব দেশে গরু আছে, তবে, আর কোথাও গরু পূজ্য নয়। আরএসএস–‌বিজেপি গোমাতাকে দেবী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। শ্রীরাম–‌এর পরই সীতা নয়, গোমাতা। লক্ষ লক্ষ গোমাতা। দুধ যখন দিতে পারে না, তখন অবশ্য পরিত্যক্ত, সরকার নির্মিত গোশালায় কীভাবে প্রাণধারণ করে, তার কাহিনি চোখে জল আনতে পারে। সে যা–‌ই হোক, আমরা আপাতত আলোচনা করছি দুধের গুণ নিয়ে (‌মোষের বা উটের নয়)‌। রাজ্য বিজেপি–‌র সভাপতি দিলীপ ঘোষ আমাদের সম্প্রতি আলোকিত করলেন। বর্ধমানে এক গোমাতাকে পুজো করার পর, পরম আবেগে বললেন, ‘‌গরুর দুধে সোনা থাকে। কুঁজে সূ্র্যের আলো পড়লে সোনা তৈরি হয়।’‌ সতর্ক করে দিলেন, দেশি গরু হতে হবে। বিদেশি গরু, জার্সি গরু হলে হবে না, সেগুলো আন্টি গরু। কী মুশকিল, দু’‌‌দিন পরে একাধিক জায়গায় সোনার বিনিময়ে ঋণ দেওয়ার সংস্থায় হাজির কয়েকজন। গরু নিয়ে। বক্তব্য, গরুর দুধে সোনা আছে, গরু জমা রেখে স্বর্ণ–‌ঋণ দিন। দু’‌জন বিশিষ্ট ব্যক্তি বলছেন, আমাদের বাড়িতে অনেক গরু ছিল, এখনও দু–‌একটা আছে, দুধও দেয়, কিন্তু সোনা পাওয়া যায় সেটা জানা ছিল না। দিলীপবাবু পোল্যান্ডের এক গবেষণার তথ্য দিয়েছেন। বলা হচ্ছে, গো–‌দুগ্ধে ৩৮টি উপাদান আছে, তার মধ্যে একটা হল সোনা। মুশকিল, সেই গবেষণা প্রত্যাখ্যাত হয়েছে। এবং পোল্যান্ডের গরু নিয়ে গবেষণা দিয়ে কী হবে, সে তো আন্টি গরু। আর ‘‌দ্য টেলিগ্রাফ’‌ পত্রিকায় সচিত্র প্রতিবেদন ছেপে দিল, বর্ধমানে দিলীপ–‌পূজিত গরুটিও বিদেশি। আন্টি গরু!‌ ‌‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top