খবরের ভিতর লুকিয়ে থাকা ‘‌খবর’‌ অনেক সময়েই অতি গুরুত্বপূর্ণ হয়। মূল খবরকেও যেন ছাপিয়ে নেয়। আবার তাই হয়েছে। সম্প্রতি ইউপিএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ পেয়েছে। দেশ জুড়ে ৭৫৯ মেধাবী পেয়েছেন সুযোগ। তাঁরা সসম্মানে উত্তীর্ণ। আগামী দিনে দেশের দক্ষ প্রশাসক হবেন এঁরা। মানুষের সুখ–‌দুঃখ, সুবিধে অসুবিধে দেখবার দায়ভার বর্তাবে তাঁদের ওপরেই। অনেক কঠিন পরিস্থিতি সামলাতে হবে। সমাজ কল্যাণের বিবিধ সরকারি প্রকল্পকে এঁরাই কড়া নজরদারিতে পৌ‌‌‌ঁছে দেবেন যথার্থ মানুষের কাছে। সরকারের আসল কান্ডারি তাঁরাই। তাই ইউপিএসসি পরীক্ষার ফলাফলের দিকে দেশবাসীর নজর থাকে। এবারও ছিল। তবে এই খবরের ভিতর লুকিয়ে থাকা একটি খবর নজর কাড়ে সবথেকে বেশি। উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের তালিকায় রয়েছেন জম্বু–‌কাশ্মীরের সাত জন। তঁাদের মধ্যে একজন মহিলা। পেশায় চিকিৎসক তিনি। নাম রেহানা বশির। বাকিরা হলেন হরবিন্দর সিং, গোকুল মহাজন, দেবাহুতি, সানি গুপ্তা, অভিষেক অগস্ত্য, বাবর আলি চাখাট্টা। যাঁরা কিছুদিন আগেও গলা ফাটিয়ে জম্মু–‌কাশ্মীরের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছিলেন তাঁরা এখন কী বলবেন? যঁারা কিছুদিন আগেও জম্মু–‌কাশ্মীরের মানুষকে ‘‌দেশদ্রোহী’‌ আখ্যা দিচ্ছিলেন তাঁরা এখন কী বলবেন?‌ যাঁরা কিছুদিন আগেও জম্মু–‌কাশ্মীরকে বয়কটের ডাক দিয়েছিলেন তাঁরা এখন কী বলবেন?‌ যাঁরা কিছুদিন আগেও জম্মু–‌কাশ্মীরের মানুষকে দেখে আক্রমণ করছিলেন, তাঁরা এখন কী বলবেন?‌ কিছু বলার দরকার নেই। মুখের ওপর জবাব পেলেন। সব জবাব সব সময় ভোটের ফলাফলে থাকে না, মেধার ফলাফলেও থাকে। ‌কাশ্মীরবাসীকে যাঁরা সেদিন মারতে তেড়ে গিয়েছিলেন, সেই মারমুখী মানুষের ওপর যাতে কোনও দিন এই ঘৃণ্য আক্রমণ না হয়, তা নিশ্চয় কাশ্মীর থেকে আসা দক্ষ প্রশাসক দেখবেন।  ‌

জনপ্রিয়

Back To Top