আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সংসদে বাজেট পেশ করলেন অরুণ জেটলি। ২০১৯–এর লোকসভা ভোটের আগে এটাই কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর শেষ পূর্ণাঙ্গ বাজেট।
❑ অপারেশ ফ্লাড–এর মতো অপারেশন গ্রিন শুরু করবে সরকার
❑ সরকার দেশের ৮ কোটি দরিদ্র মহিলাকে বিনামূল্যে এলপিজি সংযোগ দেবে

❑ সরকার ভেষজ কৃষিতে জোর দিচ্ছে। স্বনির্ভর গোষ্ঠীকেও এব্যাপারে উৎসাহ দেবে

❑ স্বচ্ছ ভারত মিশন প্রকল্পের আওতায় দেশজুড়ে ২ কোটি শৌচালয় তৈরি করা হবে

❑ দিল্লির বায়ুদূষণ নিয়ে চিন্তিত সরকার। পাঞ্জাব, হরিয়ানা, দিল্লি, উত্তর প্রদেশে নষ্ট শস্যের জন্য বিশেষ মেশিন আনা হবে

❑ কৃষিতে ২০১৮-১৯-এ ঋণের অনুদান বাড়িয়ে ১১ লক্ষ কোটি টাকা করা হবে

❑ ২০২২-এর মধ্যে শিক্ষায় পরিকাঠামো এবং ব্যবস্থাপনার পুনরুজ্জীবনের লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে

❑ ২০২২-এর মধ্যে দেশের প্রতিটি ব্লকে প্রায় ৫০ শতাংশ তফসিলি উপজাতি এবং কমপক্ষে ২০,০০০ আদিবাসী নবোদয় বিদ্যালয় প্রকল্পের আওতায় একলব্য স্কুল পাবেন   

❑ যোজনা এবং প্রযুক্তিতে দুটি পূর্ণ স্কুল তৈরি করবে সরকার

❑ শিক্ষায় ডিজিটাল ইনটেনসিটি বাড়ানো হবে, প্রযুক্তিতে শিক্ষার চালকের আসনে বসানো হবে

❑ স্কুল, কলেজে ব্ল্যাক বোর্ডের পরিবর্তে ডিজিটাল বোর্ড আনবে সরকার 

❑ বাঁশ শিল্পের উন্নয়নে ১২০০ কোটি টাকা বরাদ্দ, মাছ এবং পশুপালন শিল্পে বরাদ্দ ১০,০০০ কোটি

❑ কৃষি বাজারের উন্নয়নে ২০০০ কোটির কৃষিবাজার উন্নয়ন ফান্ড হবে

❑ ভারতের ডিরেক্ট বেনিফিট ট্রান্সফার প্রকল্প সারা বিশ্বে লাফজনক প্রকল্প

❑ খরিফ শস্যে উৎপাদন মূল্যের ১.৫ গুণ কমানো হয়েছে নূন্যতম সহায়ক মূল্য

❑ কৃষকদের কৃষিকাজ এবং অকৃষিকাজে কর্মসংস্থানে জোর। কম উৎপাদন মূল্যে বেশি নূন্যতম সহায়ক মূল্য পাওয়াই লক্ষ্য কেন্দ্রে

❑ নমামি গঙ্গে প্রকল্পে ১৮৭টি প্রকল্পে অনুমোদন

❑ দেশে কৃষি ক্ষেত্রে বিশাল উন্নতি হয়েছে। ২০২২-এর মধ্যে কৃষকদের আয় দ্বিগুণ হয়ে যাবে

❑ আরও বেশি ফল পেতে রাজ্যগুলির সহায়তা নিয়েই এগোবে কেন্দ্র

❑ দেশের অর্থনীতিতে প্রায় ৮ শতাংশ বৃদ্ধি হয়েছে। ২০১৮-১৯-এর মধ্যে ৭.২-৭.৫ শতাংশ বৃদ্ধি হবে

❑ স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলির জন্য ১২০০ কোটি বরাদ্দ। প্রতি পরিবারের প্রতি বছরে ৫ লক্ষ টাকা বরাদ্দ। ১০ কোটি গরিব পরিবার এই বরাদ্দ পাবে।

❑ জেলা হাসপাতালগুলির পরিকাঠামো  উন্নয়ন ছাড়া নতুন ২৪টি সরকারি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল তৈরি হবে

❑ ১১৫টি জেলাকে চিহ্নিত করা হয়েছে সেখানের জীবনযাত্রা উন্নয়নের লক্ষ্যে

❑ হাওয়াই চটি পরা যাত্রীও এবার বিমানে চাপতেন পারবেন

❑ উড়ান প্রকল্পে ৫৬টি অব্যবহৃত বিমানবন্দর এবং ৩১টি অব্যবহৃত হেলিপ্যাডে নজর

❑ দেশে এখন ১২৪টি বিমানবন্দর আছে। তা আরও ৫ গুণ বাড়ানো হবে। বছরে ১ বিলিয়ন উড়ান চালু করতে চায় সরকার

❑ তফসিলি জাতির উন্নয়নে ৫৬,৬১৯ কোটি বরাদ্দ, তফসিলি উপজাতির উন্নয়নে ৩৯,১৩৫ কোটি বরাদ্দ

❑ নতুন কর্মচারীদের জন্য ৩ বছরে ইপিএফ-এর ৮.৩৩ শতাংশ এবং বড় কোম্পানিগুলির জন্য ১২ শতাংশ বরাদ্দ

❑ অরুণাচল প্রদেশের সে লা পাসে সুড়ঙ্গ তৈরির পরিকল্পনা

❑ দেশের ৫০০টি শহরে জল সরবরাহে অমৃত প্রকল্পে জোর। ১৯৪২৮ কোটি টাকায় এজন্য ৪৯৪টি প্রকল্প নেওয়া হয়েছে

❑ ১২,০০০ ওয়াগন, ৫১৬০টি কামরা এবং ৭০০টি ইঞ্জিন তৈরি করবে রেল

❑ যে সব স্টেশনে ২৫,০০০-এর বেশি মানুষের যাতায়াত সেখানে এস্কেলেটর তৈরি হবে। সব স্টেশনেই ক্রমে ওয়াইফাই, সিসিটিভি বসানো হবে

❑ বুলেট ট্রেনের মতো দ্রুত গতির ট্রেনে উপযুক্ত কর্মী প্রশিক্ষণে ভদোদরায় প্রশিক্ষণ কেন্দ্র তৈরি হবে।

❑ দেশের ৬০০টি বড় স্টেশনের পুনর্গঠন হবে। মুম্বইয়ের পরিবহন ব্যবস্থা সম্প্রসারিত হবে। বেঙ্গালুরুর শহরতলির ১৬০ কিলোমিটার সম্প্রসারণ হবে

❑ যাত্রী সুরক্ষা, রেলট্র্যাকের রক্ষণাবেক্ষণ, প্রযুক্তি এবং কুয়াশা থেকে বাঁচার সুরক্ষাবিধিতে নজর

❑  এক লক্ষ গ্রাম পঞ্চায়েতকে অপটিক ফাইবারের সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে। ৫ লক্ষ গ্রামীণ এলাকাকে ওয়াইফাই-এর সঙ্গে যুক্ত করা হবে

❑ আর্টিফিশায়াল ইন্টেলিজেন্সে জোর দিতে নীতি আয়োগে বিশেষ ব্যবস্থা

❑ ১০টি জায়গায় পর্যটকদের জন্য আইকনিক স্পট তৈরি হবে 

❑ ক্রিপ্টো কারেন্সি বা বিট কয়েন রুখতে লেনদেন ব্লকচেইন প্রযুক্তিতে জোর

❑ রাষ্ট্রপতির ভাতা হবে ৫ লক্ষ টাকা, উপ রাষ্ট্রপতির ভাতা হবে ৪ লক্ষ টাকা

❑ সাংসদদের ভাতা ঠিক করতে বেতন পরিকাঠামোয় পরিবর্তনের প্রস্তাব আনছে সরকার। মূল্যবৃদ্ধির দিকে লক্ষ্য রেখে ৫ বঠর অন্তর এই ভাতায় পরিবর্তন হবে

❑ স্বর্ণ ঋণের নীতিতে বদল আনা হচ্ছে যাতে  কোনও ঝঞ্ঝাট ছাড়াই এই সুবিধা পেতে পারেন সাধারম মানুষ

❑ ২০১৪-১৫ থেকে  ২০১৬-১৭-তে করদাতাদের সংখ্যা বেড়েছে ৮.২৭ কোটি 

❑ নোট বাতিলকে সব সৎ মানুষই স্বাগত জানিয়েছেন

❑ করদাতাদের সংখ্যা বাড়লেও কর জমার হার বাড়েনি

❑ যে সব কৃষি সংস্থাগুলির ১০০ কোটি টাকা টার্নওভার তাদের ১০০ শতাংশ কর ছাড়ের প্রস্তাব

❑ গত ৩ বছরে ব্যক্তি প্রতি আয়কর হারে অনেক বদল এনেছে সরকার

❑ বেতনভোগীদের আয়কর অপরিবর্তিত

❑ সরকারি এবং বেসরকারি ক্ষেত্রে উৎপাদনে জোরদিতে দুটি প্রতিরক্ষা শিল্প করিডোর তৈরি হবে

❑ যে সব কোম্পানির রাজস্বের পরিমাণ ২৫০ কোটি টাকা তাদের করের হার ২৫ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব

❑ বয়োঃজেষ্ঠ্য নাগরিকদের সুদ বাড়িয়ে ৫০,০০০ করা হবে

❑ ৪০,০০০ টাকা পর্যন্ত স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন দেখানো যাবে স্বাস্থ্য এবং ভ্রমণ খাতে। ৪০,০০০ টাকা পর্যন্ত বেতন থেকে বাদ দিয়ে আয়কর   

❑ ইক্যুয়িটি ওরিয়েন্টেড মিউচুয়াল ফান্ড এবং শেয়ার কেনাবেচায় ১০ শতাংশ কর বৃদ্ধির প্রস্তাব

❑ লং টার্ম ক্যাপিটাল গেইন ট্যাক্স ১০ শতাংশ

❑ মোবাইলে কাস্টম্‌স ডিউটি ১৫ শতাংশ থেকে বেড়ে হল ২০ শতাংশ

 

জনপ্রিয়

Back To Top