Token: ‌পিছোল ৬ মাস, জুলাই থেকে অনলাইন কেনাকাটায় চালু হচ্ছে ‘‌টোকেন’‌ ব্যবস্থা

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অনলাইন কেনাকাটার ক্ষেত্রে অনেকেই ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেন।

কিন্তু এতে প্রতারণার ঝুঁকি থাকে। সেই ঝুঁকি নির্মূল করতে ‘টোকেন’ ব্যবস্থা চালু করার কথা ঘোষণা করেছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। ঠিক হয়েছিল ২০২২ সালের ১ জানুয়ারি থেকেই দেশ জুড়ে এই ব্যবস্থা চালু হয়ে যাবে। এবার তা ছ’মাস পিছিয়ে দেওয়া হল। আরবিআই এর নয়া নির্দেশিকা বলছে, ২০২২ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত বহাল থাকবে পুরনো নিয়ম। ১ জুলাই থেকে শুরু হবে টোকেন ব্যবস্থায় লেনদেন।

আরও পড়ুন:‌ স্মার্ট ফোনের বদলে ৩,৩০০ টাকায় মিলল একদলা মাটি!‌ মাথায় হাত চা শ্রমিকের


মার্চেন্ট পেমেন্টস অ্যালায়েন্স অফ ইন্ডিয়া (এমপিএআই), অ্যালায়েন্স অফ ডিজিটাল ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন (এডিআইএফ) এর মতো শিল্প সংগঠন বাজারের প্রস্তুতির জন্য আরও সময় চেয়ে আবেদন করেছিল। সম্ভবত সেই আবেদনের প্রেক্ষিতেই বাড়তি ছয় মাস সময় বরাদ্দ করল আরবিআই।
অ্যামাজন, ফ্লিপকার্ট, সুইগি, জোম্যাটোর মতো ই–কমার্স সংস্থা থেকে জিনিসপত্র কেনাকাটা করতে হলে অনেকেই ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেন। সেক্ষেত্রে  প্রথমবার সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটে গিয়ে নিজের ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ডের ১৬ সংখ্যার নম্বর দিতে হয়। তারপর সিভিভি/‌সিভিসি নম্বর দিয়ে ওটিপি–র মাধ্যমে টাকা মেটাতে হয়। একাধিকবার একই সাইট থেকে কেনাকাটা করলে ১৬ সংখ্যার নম্বরও দিতে হয় না। তা সংরক্ষিত হয়ে থাকে ওয়েবসাইট বা পেমেন্ট গেটওয়েতেই। তখন শুধুমাত্র সিভিভি নম্বর দিয়ে ওটিপি–র মাধ্যমে সহজেই দাম মেটানো যায়। এতেই থেকে যায় প্রতারণার ঝুঁকি। কারণ কেনাকাটা আরও সহজ করতে কার্ডের তথ্য জমা হয়ে থাকে সংশ্লিষ্ট সংস্থার ওয়েবসাইটেই। আরবিআই সম্প্রতি এই নিয়মেই বদল এনেছে। তার নাম দেওয়া হয় ‘টোকেনাইজেশন’। এই পদ্ধতিতে কেনাকাটার সময় সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটকে দিতে হবে একটি বিকল্প কোড। সেই কোড সরবরাহ করবে ব্যাঙ্ক। এই কোডেরই নাম ‘টোকেন’। এর ফলে গ্রাহক কেনাকাটা করতে পারবেন আগের মতোই, কিন্তু সংশ্লিষ্ট ই–কমার্স সংস্থার কাছে জমা থাকবে না আপনার কার্ডের তথ্য। আরবিআই এর মতে, এর ফলে কমবে প্রতারণার ঝুঁকি।

আকর্ষণীয় খবর