আজকাল ওয়েবডেস্ক: বাংলায় ফিরতে চলেছে টাটা। গুজরাটের সানন্দে ন্যানো গাড়ির কারখানা যখন উঠে যেতে বসেছে, তখন বাংলাতেই ভরসা রাখলেন রতন টাটা। নির্মাণ ও খনির সরঞ্জাম উৎপাদনকারী সংস্থা টাটা হিতাচি ঝাড়খণ্ড থেকে খড়গপুরে আসবে বলে জানা গিয়েছে। এই উদ্যোগ অবশ্যই বাংলার জন্য ফলদায়ক হবে বলে মনে করা হচ্ছে। 
সংস্থার পক্ষ থেকে জানা গিয়েছে, ১৯৬১ সাল থেকে জামশেদপুরে সংস্থার পুরনো উৎপাদন কেন্দ্রটিকে বন্ধ করে দেওয়া হবে এবং তা সরিয়ে নিয়ে আসা হবে বাংলায়। ইতিমধ্যেই এ রাজ্যে উৎপাদন কেন্দ্র থেকে যন্ত্রাংশ নিয়ে আসা হয়েছে। জানা গিয়েছে, জামশেদপুর কেন্দ্রে ৬৫–১২০ টনের খননকারী যন্ত্র তৈরি হতো। ৩০০ জন কর্মীদের নিয়ে টাটা হিতাচি খড়গপুরে স্থানান্তরিত হতে চলেছে। ২০০৬ সালে খড়গপুরের টাটা হিতাচি প্রতিষ্ঠানের জন্য ৫৫০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হয়। একই সময়ে সিঙ্গুরে ন্যানো কারখানার জন্য বিনিয়োগ করা হয়েছিল। ন্যানো কারখানার মত টাটা হিতাচিকে কোনও সমস্যার সম্মুখীন হতে না হলেও, ২০১৫ সালে কিছু চুক্তিভিত্তিক কর্মীদের বিক্ষোভ–প্রতিবাদের সামনে পড়ে এই সংস্থা। যদিও রাজ্য সরকারের উচ্চস্তরের পদক্ষেপে দ্রুত এই জট কেটে যায়। 
রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আশ্বাস পাওয়ার পরই টাটার সংস্থা দ্বিতীয়বার বাংলায় আসছে বলে জানা গিয়েছে। এর আগে টাটা স্পঞ্জ আয়রন সংস্থাও ওড়িশার জোদা থেকে বাংলায় চলে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।          ‌

 

 


 

জনপ্রিয়

Back To Top