‌আজকালের প্রতিবেদন: পড়ুয়াদের স্বনির্ভর করতে এবং ভবিষ্যতে চাকরির পথ খুলে দিতে নতুন দিগন্তের সূচনা করল সিস্টার নিবেদিতা ইউনিভার্সিটি। বিভিন্ন নামীদামি সংস্থার সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে নতুন নতুন কোর্সের পঠন–‌পাঠনের মাধ্যমে পড়ুয়াদের ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত করতেই এই উদ্যোগ। শুক্রবার ইউনিভার্সিটির অডিটোরিয়ামে হল সেই অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে ভাষণ দিতে গিয়ে সিস্টার নিবেদিতা ইউনিভার্সিটির আচার্য এবং টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সত্যম রায়চৌধুরী বলেন, ‘‌আমরা শিল্পমুখী পঠন–‌পাঠনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার উদ্যোগ নিচ্ছি। যাতে শিল্প সংস্থা এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দু’‌‌তরফই লাভবান হতে পারে। শিল্প সংস্থাগুলি চায়, তরুণ কর্মোদ্যোগী এবং পেশাদারদের। যারা বিভিন্ন সংস্থার প্রয়োজন মেটাতে সমর্থ হবে। অন্যদিকে সিস্টার নিবেদিতা ইউনিভার্সিটি শিল্প সংস্থাগুলির কাছ থেকে পথনির্দেশ চায় যাতে পরবর্তী সময়ে গবেষণার কাজ করা যায়। ফলস্বরূপ ভবিষ্যতে দেশ এবং সমাজ বৃহৎ অর্থে উপকৃত হবে।’‌ এদিন ওই অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিল্প সংস্থা এবং শিল্প সহযোগীদের সঙ্গে এক নতুন পথচলা শুরু হল। সংস্থাগুলি হল এসএসসি ন্যাসকম, পাইন বায়োটেক, টিকারপ্ল্যান্ট লিমিটেড, ডেটা সায়েন্স ফাউন্ডেশন, এলিটমাস এবং ইনোভেশননেক্সট। উপস্থিত ছিলেন এআইসিটিই–‌র চেয়ারম্যান অধ্যাপক অনিল ডি সহস্রবুদ্ধে, কলকাতা এবং মুম্বই হাইকোর্টের প্রাক্তন মুখ্য বিচারপতি চিত্ততোষ মুখার্জি, আইটি সেক্টর স্কিল কাউন্সিল অ্যান্ড ভিপি ন্যাসকম এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর ড.‌ সন্ধ্যা চিন্তলা, পাইন বায়োটেকের বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ডিরেক্টর মোহিত মজুমদার, টিকারপ্ল্যান্ট লিমিটেডের জয়েন্ট সিইও অরিন্দম সাহা, ডেটা সায়েন্স ফাউন্ডেশনের প্রেসিডেন্ট গৌতম ব্যানার্জি, এলিটমাসের বিজনেস ডিরেক্টর অসীম মারওয়া, ইনোভেশননেক্সট–‌এর প্রতিষ্ঠাতা প্রবীণ রাজপাল। এসএসসি ন্যাসকম চায় সিস্টার নিবেদিতা ইউনিভার্সিটি এবং টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপ কলেজের ছাত্রছাত্রীদের জন্য সুসংহত একটি শিক্ষা সিলেবাস তৈরি করতে। পড়াশোনা শেষে পড়ুয়াদের শংসাপত্র দেওয়া হবে। যাতে পরবর্তী সময়ে তথ্য প্রযুক্তির জগতে তারা নিজেদের ক্ষেত্র খুঁজে নিতে পারে। বায়োটেক, বায়োইনফরমেটিক্স, বায়োমেডিক্যাল ইত্যাদি বিষয় নিয়ে পাইন বায়োটেক চায় পড়ুয়াদের সহায়তা করতে। যাতে ওই বিষয়গুলি অধ্যয়নের শেষে পড়ুয়ারা কর্মমুখী জগতে প্রবেশ করতে পারে। টিকারপ্ল্যান্ট লিমিটেড চায় ফাইনান্সিয়াল ইনফর্মেশন সার্ভিসেস ইন্ডাস্ট্রির ক্ষেত্রে পড়ুয়াদের অর্থনীতি এবং বাণিজ্য সম্পর্কে নির্দিষ্ট শিক্ষা দিতে। যে সমস্ত পড়ুয়া ‘‌ইকনমিক্স ম্যানেজমেন্ট বিজনেস প্রসেস’‌ এবং ‘‌ম্যানেজমেন্ট স্কিলস’‌ বিষয়ে আগ্রহী টিকারপ্ল্যান্ট লিমিটেড তাদের সহায়তা করবে। আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স এবং অ্যাডভান্স অ্যানালিটিক সেক্টরে ডেটা সায়েন্স ফাউন্ডেশন একটি সুপরিচিত নাম। সংস্থা চায় ডেটা অ্যানালিসিস বিগ ডেটা এবং ডেটা সায়েন্স সম্পর্কে পড়ুয়াদের অবহিত করতে। তথ্য প্রযুক্তি সংস্থাগুলির মধ্যে এলিটমাস একটি নামী সংস্থা। তাদের লক্ষ্য সিস্টার নিবেদিতা ইউনিভার্সিটি এবং টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপের পড়ুয়াদের তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কে সাম্প্রতিক গবেষণা এবং আধুনিক ভাবনা–‌চিন্তার দিক নির্দেশ করতে। ইনোভেশননেক্সট সংস্থা চায় গবেষণা, উৎপাদিত সামগ্রীর উন্নয়ন, উৎপাদিত সামগ্রীর বাণিজ্যিকীকরণ এবং সাইবার সিকিউরিটি ও রোবোটিক্স সম্পর্কে অবহিত করতে।‌‌

নতুন দিগন্ত। বিভিন্ন নামী সংস্থার সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধল সিস্টার নিবেদিতা ইউনিভার্সিটি। অনুষ্ঠানে সত্যম রায়চৌধুরী, প্রধান অতিথি এআইসিটিই–‌‌র চেয়ারম্যান অনিল ডি সহস্রবুদ্ধে, আইটি, আইটি সেক্টর স্কিল কাউন্সিলের এগজিকিউটিভ ডিরেক্টর এবং ন্যাসকমের ভাইস প্রেসিডেন্ট ডঃ সন্ধ্যা চিন্তালা। ছবি:‌ কৌশিক সরকার‌

জনপ্রিয়

Back To Top