সংবাদ সংস্থা, দিল্লি, ১ অক্টোবর- দেশের অর্থনীতির নড়বড়ে দশা প্রকট শেয়ার বাজারে। সূচক নামছে টানা তিনদিন ধরে। এরই মধ্যে ফের দাম বাড়ল রান্নার গ্যাস, পেট্রোল, ডিজেলের। পদে পদে দুর্ভোগ। 
পেট্রোল–‌ডিজেলের দাম পরিবর্তিত হয় দৈনিক ভিত্তিতে। সোমবার আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কিছুটা কমেছে। কিন্তু মঙ্গলবারও দাম বেড়েছে। বস্তুত গত দু’‌সপ্তাহে একদিনও দাম কমেনি। মঙ্গলবার কলকাতায় পেট্রোলের দাম লিটারে ১৪ পয়সা বেড়ে ৭৭.‌২৩ টাকা। ডিজেলের দাম লিটার পিছু ১৪ পয়সা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৯.‌৮৫ টাকা। এদিন দিল্লিতে পেট্রোলের দাম বেড়েছে লিটারে ১৯ পয়সা, ডিজেলের ১৬ পয়সা। এদিকে সেপ্টেম্বরের পর অক্টোবরেও ভর্তুকিহীন রান্নার গ্যাসের দাম বাড়ল। কলকাতায় ১৪.‌২ কিলো ওজনের সিলিন্ডার পিছু দাম ১৩.‌৫০ টাকা বেড়ে হয়েছে ৬৩০ টাকা। সেপ্টেম্বরে ছিল ৬১৬.‌৫০ টাকা, আগস্টে ৬০১ টাকা।  
এদিকে শেয়ার বাজারে মঙ্গলবার সেনসেক্স পড়ে গেছে ৩৬১.‌৯২ পয়েন্ট বা ০.‌৯৪ শতাংশ। নিফটি পড়েছে ১১৪.‌৫৫ পয়েন্ট বা ১ শতাংশ। দিনের শেষে সেনসেক্স ৩৮,৩০৫.‌৪১ পয়েন্ট, নিফটি ১১,৩৫৯.‌৯০ পয়েন্ট। বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, পাঞ্জাব অ্যান্ড মহারাষ্ট্র কো–‌অপারেটিভ ব্যাঙ্ক (পিএমসি)–‌এর গোলমালের জেরে বিনিয়োগকারীরা সতর্ক। ব্যাঙ্কিং ক্ষেত্র ধাক্কা খাচ্ছে। পিএমসি–‌র ম্যানেজিং ডিরেক্টর জয় টমাস রিজার্ভ ব্যাঙ্কের কাছে স্বীকার করেছেন, তিনি ছ’বছর ধরে ৬ হাজার কোটি টাকার অনাদায়ী ঋণের তথ্য গোপন করেছিলেন। তা ছাড়া, বিএমএ ওয়েলথ ক্রিয়েটরস নামে কলকাতার এক বড় ব্রোকার সংস্থাকে এনএসই সাসপেন্ড করেছে। এনিয়েও শেয়ার বাজারে ছড়িয়েছে একধরনের ভীতি।
আসলে সামগ্রিকভাবেই দেশের অর্থনীতিতে একটা ঢিমে দশা চলছে। গতকাল বেরনো পরিসংখ্যান অনুযায়ী, আগস্ট মাসে পরিকাঠামো ক্ষেত্রে সঙ্কোচন ঘটেছে ০.‌৫ শতাংশ। ২০১৫–‌র এপ্রিলের পর প্রথম পতন। আগেই তথ্য এসেছে, কারখানায় উৎপাদনের করুণ দশা। চলতি অর্থবর্ষের প্রথম তিন মাসে (‌এপ্রিল–‌জুন)‌ উৎপাদন বৃদ্ধির হার ছিল ছ’‌বছরের মধ্যে মন্থরতম। 
 

জনপ্রিয়

Back To Top