আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ জোগানের সুতো ছিঁড়ে যাওয়ার জেরেই খুচরো বাজারে বেড়েছে মূল্যবৃদ্ধি। সরবরাব ব্যবস্থা স্বাভাবিক হলেই জিনিসপত্রের দাম আয়ত্তের মধ্যে চলে আসবে। আশ্বাস দিয়ে বললেন মুখ্য আর্থিক উপদেষ্টা কৃষ্ণমূর্তি সুব্রহ্মণ্যম। তাঁর মতে, আঞ্চলিক লকডাউন শিথিল হতে শুরু করলেই রাজ্যে রাজ্যে পণ্য সরবরাহ স্বাভাবিক হবে। তার ফলেই খুচরো বাজারে মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। 
সরকারি হিসেব অনুযায়ী, জুনে খুচরো বাজারে মূল্যবৃদ্ধির হার ৬.‌০৯% ছিল। জুলাই–এ তা বেড়ে ৬‌.‌৯৩% হয়েছিল। ডাল, আনাজ, মাছ, মাংসের মতো খাদ্যপণ্যের দামবৃদ্ধির জেরেই অনেকটা বেড়ে গিয়েছিল খুচরো বাজারের মূল্যবৃদ্ধি। যদিও পাইকারি বাজারের জুলাই–তে ০.‌৫৮% কমেছিল। 
বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, গোটা বছরেই মূল্যবৃদ্ধির হার মাথা তুলেই থাকবে। আর যার ফলে রেপো রেট কমানোর কথাও ভাববে না রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। খুচরো বাজারে মূল্যবৃদ্ধির হার ২–৬% –এর মধ্যে রাখার পরামর্শ দিয়েছে আরবিআই–এর ৬ সদস্যের মানিটারি পলিসি কমিটি। অর্থাৎ, মূল্যবৃদ্ধির হার ৪%–এর আশেপাশে রাখার কথা বলেছিল শীর্ষ ব্যাঙ্ক। জুন মাসে তা মোটামুটি নিয়ন্ত্রণে থাকলেও জুলাই–তে এক ধাক্কায় অনেকটাই বেড়ে গিয়েছিল। 
বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, কৃষ্ণমূর্তি সুব্রহ্মণ্যম আশ্বাস অনুযায়ী যদি সত্যিই খুচরো বাজারে মূল্যবৃদ্ধি কমে, তাহলে আগামীদিনে রেপো রেট কমানোর সিদ্ধান্ত নিতে পারে আরবিআই। আগস্টের বৈঠকে মূল্যবৃদ্ধির ভয়ে রেপো রেট কমানো থেকে পিছিয়ে এসেছিল শীর্ষ ব্যাঙ্ক। জিডিপির ঐতিহাসিক পতনের পর কী উপায়ে দেশের অর্থনীতি সামাল দেবে রিজার্ভ–কেন্দ্র, এখন সেটাই দেখার।

জনপ্রিয়

Back To Top