আজকালের প্রতিবেদন‌, দিল্লি: বেসরকারি ব্যাঙ্কে তরতরিয়ে বেড়েছে গ্রাহকদের আমানত। ধুঁকছে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলি। গত ৩ বছর ধরে একই হাল। গত বছর ব্যাঙ্কগুলির আমানতের এই হিসেবে চোখ বুলিয়ে রীতিমতো চক্ষু চড়কগাছ বিশেষজ্ঞদের। আশঙ্কা, এইভাবে সরকারি ব্যাঙ্কে আমানত কমতে থাকলে ঘটতে পারে অঘটন।
এই ব্যাপারে অর্থনীতিবিদ অভিরূপ সরকার জানিয়েছেন, ‘‌বেসরকারি ব্যাঙ্কগুলি শুধুমাত্র লাভের অঙ্ক দেখে ব্যবসা করে। জনগণের প্রতি সামাজিক কোনও দায়বদ্ধতা তাদের নেই। ভারতের মতো দেশে এই নীতি চলতে পারে না। রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলিকে প্রত্যন্ত গ্রামে ব্যাঙ্কিং পরিষেবা পৌঁছে দিতে গিয়ে অনেক বেশি ব্যয় করতে হয়, যা সামাজিক কর্তব্যের অধীন। এই বিষয়টি কেন্দ্রীয় সরকারের ভেবে দেখা উচিত।’‌ তিনি মনে করেন, বেসরকারি ব্যাঙ্কগুলির উন্নত ও ভাল পরিষেবার কারণেই আম জনতা তাদের দিকে যাচ্ছে। তিনি একথাও বলেছেন যে আরবিআই–এর রেপো রেট সম্পর্কিত নির্দেশিকা পুরোপুরি না মেনে এখনও কিছু বেসরকারি ব্যাঙ্ক রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের তুলনায় ভাল সুদ দেয় গ্রাহকদের।
গত বছর জুলাই–‌‌ডিসেম্বর এই ছ’‌মাসে এইচডিএফসি ব্যাঙ্কে ১.‌১২ লক্ষ কোটি, আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কে ৫৫,‌৬১৩ কোটি এবং অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কে ৫০,৯৯৮ কোটি টাকা আমানত জমা পড়েছে। এই ৩টি ব্যাঙ্কে জমা পড়া আমানত ৮টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের আমানতের ৮২ শতাংশ। দেশের ৮টি বড় মাপের বেসরকারি ব্যাঙ্কের আমানত বেড়েছে ২.‌৬৮ লক্ষ কোটি, যা রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কে জমা পড়া আমানতের চেয়ে ঢের বেশি। 
তৃণমূল সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায়ের অভিযোগ, এটি আসলে ব্যাঙ্কিং ব্যবস্থার বেসরকারীকরণের একটি ফল। ‘‌বেচো ইন্ডিয়া’‌ প্রকল্পের অঙ্গ। তবে, শুধু ব্যাঙ্ক নয়, রেল, বিমান, জল পরিবহণ— সবকিছুই বেসরকারি হাতে তুলে দিচ্ছে নরেন্দ্র মোদি সরকার। তাঁর কথায়, ‘‌জীবন বিমাকেও বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার ষড়যন্ত্র সামনে এসেছে। এখন রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের তুলনায় বেসরকারি ব্যাঙ্কের আমানত দ্বিগুণের বেশি হওয়ার অর্থ দেশের ৭০ শতাংশ মানুষের হাত আজও ফাঁকা রয়ে গিয়েছে।’‌ 
রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলি গ্রামাঞ্চলে পরিষেবা দেয়। ঋণ দেয় গ্রামাঞ্চলের মানুষকে, কৃষককে। কিন্তু বেসরকারি ব্যাঙ্কগুলো এমন সামাজিক দায় বহন করে না। তা সত্ত্বেও শহরাঞ্চলের আমানতের ওপর ভর করে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ককে পিছনে ফেলে দিয়েছে বেসরকারি ব্যাঙ্কগুলি। গত বছরের প্রথমার্ধে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলির আমানত বৃদ্ধি পেয়েছিল। এসবিআই এবং পিএনবি–‌‌সহ মোট ৮টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের আমানত ছিল ৫.‌২৫ লক্ষ কোটি। যা বেসরকারি ব্যাঙ্কের (‌২.‌৫৩ লক্ষ কোটি)‌ থেকে অনেক বেশি। কিন্তু, শেষ অর্ধে আবারও অধোগতি দেখা দিয়েছে। ‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top