আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক এবং রোটোম্যাকের আর্থিক কেলেঙ্কারির জেরে সামনে এল নয়া তথ্য। গত সাত বছরে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাঙ্কগুলি ঋণ দিয়ে ৩০ হাজার কোটি টাকা লোকসান করেছে। যদিও তথ্য বলছে ঋণখেলাপীদের যে সম্পত্তি বন্ধক রাখা হয়েছে, তার অর্থমূল্য ৪৪ হাজার কোটি টাকা। বিমাক্ষেত্রে চল্লিশটিরও বেশি ব্যাঙ্কে ৫ থেকে ১৬ শতাংশ লভ্যাংশ বণ্টনের চুক্তি রয়েছে। তবে বর্তমানে বন্ধক রাখা সম্পত্তির অর্থমূল্য কমতে থাকায় প্রায় চার শতাংশ কমেছে লভ্যাংশ বণ্টনের চুক্তি। ফলে ব্যাঙ্কিং ক্ষেত্রে বিনিয়োগের পরিমাণও কমিয়ে দিয়েছে। এলআইসি–র মতো বড় বিমা সংস্থা গতবছরের তুলনায় চলতি বছরে বিনিয়োগ ৭ শতাংশ কমিয়েছে। পাশাপাশি কুপ্রভাব পড়েছে এসবিআই, ইউকো ব্যাঙ্ক, ব্যাঙ্ক অফ বরোদা, ইউনিয়ন ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া, এলাহাবাদ ব্যাঙ্ক,  আইডিবিআই ব্যাঙ্ক, অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক, ইন্ডিয়ান ওভারসিজ ব্যাঙ্কের ব্যবসার ওপরেও কুপ্রভাব পড়েছে। রোটোম্যাক ও নীরব মোদির আর্থিক কেলেঙ্কারি সামনে আসার পরে সবচেয়ে বড় ক্ষতি হয়েছে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার। তাদের সূচক পড়েছে ৭ শতাংশ।  ইউকো ব্যাঙ্কের সূচক নেমেছে ৯ শতাংশ। সব চেয়ে বেশি ক্ষতি ব্যাঙ্ক অফ বরোদা–র। তাদের সূচক পড়ল ১৫ শতাংশ।

জনপ্রিয়

Back To Top