‌আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ পরিসংখ্যান বলছে, গত পাঁচ বছরে ভারতের অর্থনীতিতে এমন মন্দা আগে কখনও দেখা যায়নি। দ্বিতীয় মোদি সরকারের প্রথম ৫০ দিনেই প্রায় ১২ লক্ষ কোটি টাকা হারাল দালাল স্ট্রিট। মাথায় হাত বিনিয়োগকারীদের।
 ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় ফেরার পর বাজেট অধিবেশনে ভারতের অর্থনীতিকে ৫ ট্রিলিয়ন ডলারে পৌঁছানোর লক্ষ্যমাত্রা রেখেছিল মোদি সরকার। শুধু তাই নয়, চলতি বছরেই অর্থনীতিকে ৩ ট্রিলিয়ন ডলারে নিয়ে যাওয়ার কথা ঘোষণা করে  বেসরকারি বিনিয়োগকারীদের আশার আলো দেখিয়েছিল এনডিএ সরকার। কিন্তু বিনিয়োগকারীদের সমস্ত প্রত্যাশা মাটি হয়ে গিয়েছে। ভোগ, বেসরকারি বিনিয়োগ, রপ্তানি– সবক্ষেত্রেই মন্দা দেখা দিয়েছে। চলতি বছরের মার্চ মাসে চীনের কাছে বিশ্বের দ্রুততম ক্রমবর্ধমান অর্থনীতির তকমা হারিয়েছে ভারত। মার্চ মাসে ত্রৈমাসিক আর্থিক বৃদ্ধির হার ৫.‌৮%–এ গিয়ে ঠেকেছে। যা গত পাঁচ বছরে সবচেয়ে কম। যেখানে চীনের ত্রৈমাসিক আর্থিক বৃদ্ধির হার ছিল ৬.‌৪%।
সামগ্রিক ব্যয়ের বৃহত্তম উপাদান ব্যক্তিগত খরচ। ‌২০১৮–১৯ অর্থবর্ষে ব্যক্তিগত খরচের পরিসংখ্যানেও ঘাটতি দেখা গিয়েছে। চলতি অর্থবর্ষে পেট্রোলিয়াম জাতীয় পণ্য ভোগের হার কমে ২.‌৬৫%–এ দাঁড়িয়েছে। যেখানে ২০১৭–১৮ অর্থবর্ষে সেই হার ছিল ৫.‌৯%। মার্চ মাসে ত্রৈমাসিক আর্থিক বৃদ্ধির হার ‌অনুসারে ভোগ্যপণ্য ১৩.‌৬% হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। যা ডিসেম্বরের তুলনায় ২.‌৩% কম। চলতি অর্থবর্ষে যাত্রীবাহি গাড়ির ওপর খরচ বৃদ্ধির হারও কমে গিয়েছে। 
সব মিলিয়ে এমন পরিস্থিতি ভারত আগে কখনও দেখেনি। বিশেষজ্ঞদের মতে, যেখানে লক্ষ্যমাত্রা এতটাই বড় সেখানে অর্থনীতির এমন হাল কখনই কাম্য নয়।    ‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top