আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ গরিব বা উচ্চবিত্ত নয়। লকডাউনে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত মধ্যবিত্ত। বলা ভালো, মধ্য থেকে উচ্চ–মধ্যবিত্ত শ্রেণি। জানাচ্ছে ‘‌সেন্টার ফর মনিটরিং দ্য ইন্ডিয়ান ইকোনমি’‌ (সিএমাইই‌)। দেশে বেকারত্বের হার, আয় বৈষম্য এবং অর্থনীতির উপর তার প্রভাব নিয়ে তথ্য সংগ্রহ, সমীক্ষা ও গবেষণা করে মুম্বই–এর এই সংস্থা। সংস্থার দাবি, লকডাউনে কাজ চলে যাওয়া বা বেতন ছাঁটাইয়ের কারণে ৩০%–এর বেশি আয় কমেছে এই শ্রেণির। তথ্য দিয়ে সিএমাইই জানাচ্ছে, যে সব পরিবারের বার্ষিক আয় ৫ লাখ, তাদের অধিকাংশের আয় বেড়েছিল গত বছর। কিন্তু এ বছর মাত্র ১৫% আয়বৃদ্ধির খবর দিচ্ছে। যে পরিবারের বার্ষিক আয় ১০ লাখের বেশি, তাদের একটা বড় অংশের আয় অস্বাভাবিকভাবে নিচে নেমেছে। বার্ষিক ১৫ লক্ষের বেশি আয়ের পরিবারগুলির খুব সামান্য অংশের আয়বৃদ্ধি ঘটলেও একেবারেই বাড়েনি সেই সব পরিবারের, যাদের আয় বার্ষিক ১৮–২০ লাখ। গত বছর এই সময়ে ৬০%–এর বেশি পরিবার (‌বার্ষিক আয় ১০ লাখের বেশি)‌ আয়বৃদ্ধির খবর দিয়েছিল। 
তবে গল্পে সামান্য মোচড় রয়েছে। বার্ষিক ২৪ লক্ষ টাকার বেশি আয় যেসব পরিবারের, তাদের আয় বেড়েছে এই লকডাউনে। যে পরিবারের বার্ষিক আয় ২৪–৩৬ লক্ষ, তাদের এক তৃতীয়াংশের আয় আরও বেড়েয়ে। বার্ষিক ৩৬ লক্ষের বেশি আয়ের পরিবারের অর্ধেকেরা আয়বৃদ্ধি ঘটেছে এই সময়ে, রিপোর্টে জানাচ্ছে সিএমাইই‌। প্রত্যেকটি আয়গোষ্ঠির গড় হিসেবে ৩৩% পরিবারের আয়বৃদ্ধি ঘটেছে গত বছর প্রথম ত্রৈমাসিকে। সেখানে এ বছর মাত্র ৬.‌৭% পরিবারের কাছ থেকে আয়বৃদ্ধির খবর মিলেছে।       

জনপ্রিয়

Back To Top