আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ধুকছে দেশের অর্থনীতি। দিনে দিনে আরও অবনতি ঘটছে দেশের গাড়ি শিল্পে। উৎপাদন ক্ষমতা হারিয়েছে শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলি। সেই তথ্যই উঠে এল সরকারি নথিতে। কেন্দ্রের পরিসংখ্যান ও প্রকল্প বাস্তবায়ন মন্ত্রকের একটি রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে। সেই রিপোর্টেই উঠে আসছে ধুকতে থাকা শিল্পোৎপাদনের পরিসংখ্যান। পরিসংখ্যান থেকে জানা গিয়েছে, চলতি বছরের আগস্ট মাসে শিল্প উৎপাদন সূচক ১.‌১ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। যেখানে গত জুলাই মাসে তা ৪.‌৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছিল। উৎপাদনকারী সংস্থাগুলির শিল্প উৎপাদন ক্ষমতা নির্ধারণ করা হয় এই শিল্প উৎপাদন সূচকের মাধ্যমে। গত বছর আগস্ট মাসে শিল্প উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছিল ৪‌.‌৮ শতাংশ। পরিসংখ্যান ও প্রকল্প বাস্তবায়ন মন্ত্রকের রিপোর্টে জানা গিয়েছে, উৎপাদন খাতে যুক্ত ২৩টি সংস্থার মধ্যে ১৫টি সংস্থার উৎপাদন ঋণাত্মক। অর্থাৎ উৎপাদনে কোনও বৃদ্ধিই ঘটেনি। হ্রাস হয়েছে। গত বছরের আগস্ট মাসের তুলনায় এই বছরের আগস্ট মাসের হিসাব এটি। বিদ্যুৎ উৎপাদন ও খনিজ উত্তোলন সব ক্ষেত্রেই দেখা গিয়েছে এই ঘাটতি। গত বছরের তুলনায় এবছরের আগস্ট মাসের হিসাব অনুযায়ী, বিদ্যুৎ উৎপাদনে এক শতাংশ ঘাটতি লক্ষ্য করা গিয়েছে।  
রিপোর্টে জানা গেল, শুধু দেশের বাজারেই নয় বিদেশের বাজারেও ভারতীয় সামগ্রির চাহিদা কমেছে। সেকারণে উৎপাদনশীলতাও কমতে শুরু করেছে। বিনিয়োগও কম আসছে। ২০১৯-২০ আর্থিক বর্ষে উৎপাদনশীলতা আরও কমবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ২০১৭ এবং ২০১৮ সালেও এতোটা কম ছিল না দেশের উৎপাদনশীলতা। 

জনপ্রিয়

Back To Top