আজকালের প্রতিবেদন: রাজ্যের তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের আরও উন্নয়নে নবদিগন্তে তৈরি হবে একটি কেন্দ্র। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, অ্যানালিটিক্সের পাশাপাশি পড়ানো হবে অ্যানিমেশনও। সেখানে অ্যানিমেশন নিয়ে ৫০০ পড়ুয়া লেখাপড়া করতে পারবেন। শুক্রবার নিউ টাউনে এক অনুষ্ঠানে এ কথা জানান রাজ্যের শিল্প–বাণিজ্য, অর্থ এবং তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী অমিত মিত্র। তিনি আরও জানান, নেটফ্লিক্স, অ্যামাজন প্রাইমের মতো সংস্থা বিভিন্ন অ্যানিমেশন স্টুডিও চুক্তি করছে বলে খবর পেয়েছি। রাজ্য চায় তারা কলকাতায়ও আসুক। এখানকার স্টুডিওগুলির সঙ্গে চুক্তি করুক। 
এদিন ওয়েবেল ডব্লুকিউই অ্যানিমেশন আকাদেমির প্রথম ব্যাচের পড়ুয়াদের শংসাপত্র এবং চাকরির নিয়োগপত্র দেওয়া হয়। তাঁরা সবাই হায়দরাবাদের একটি সংস্থায় কাজ পেয়ে গেছেন। এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের তথ্যপ্রযুক্তি দপ্তরের অতিরিক্ত মুখ্য সচিব দেবাশিস সেন, আইলিডের চেয়ারম্যান প্রদীপ চোপড়া, হায়দরাবাদের ডিকিউ এন্টারটেনমেন্টের সিইও এবং সিএমডি তাপস চক্রবর্তী, অ্যাসেমব্লেজের সিইও এ কে মাধবন প্রমুখ।
তাপস চক্রবর্তী ওয়েবেল ডব্লুকিউই অ্যানিমেশন আকাদেমির প্রশংসা করেন। এই প্রসঙ্গে অমিতবাবু বলেন, ‘‌এই আকাদেমি সরকার চালায়। তাপসবাবু এই প্রতিষ্ঠানের প্রশংসা করেছে। বলা হচ্ছে এটি হায়দরাবাদের থেকেও ভাল। কলকাতায় যে প্রতিষ্ঠান তৈরি হয়েছে, তার প্রশংসা করছেন হায়দরাবাদের অন্যতম বড় একটি অ্যানিমেশন সংস্থা। আমরা গর্বিত। আশা করি কলকাতা অ্যানিমেশন হাব হিসেবে গড়ে উঠবে।’‌ তিনি বলেন, ‘‌বাঙালিদের ডিএনএতে সৃজন ক্ষমতা রয়েছে। তবে শুধু সেটা থাকলেই তো হবে না, সেটা বাইরে আনতে হবে। ওয়েবেল ডব্লুকিউই অ্যানিমেশন আকাদেমি থেকে ২৩ জন স্নাতক হয়েছেন। তাঁরা সবাই চাকরি পেয়ে গেছেন। এখন ৬৪ জন পড়ছেন। রাজ্যে নবদিগন্তে তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের আরও উন্নয়নের জন্য একটি কেন্দ্র তৈরি করা হবে। সেখানে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, অ্যানালিটিক্স নিয়ে পড়ানো হবে। পাশাপাশি সেখানে এক তলা, দরকার পড়লে দো‌তলায় অ্যানিমেশন পড়ানো হবে। প্রতি বছর ৫০০ জন সেখান থেকে স্নাতক হবেন। এখান থেকে তাঁরা বিএসসি ডিগ্রি পাবেন, দেবে ম্যাকাউট।’‌ জানা গেছে, ওই কেন্দ্রটি নবদিগন্তের কলেজ মোড়ের কাছে দেড় একর জমির ওপর তৈরি করার পরিকল্পনা রয়েছে।

অ্যানিমেশন ভিএফএক্স অ্যান্ড গেমিং নলেজ বিষয়ে কর্মশালার উদ্বোধন করছেন অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। আছেন সমীরকুমার ভট্টাচার্য, দেবাশিস সেন, তাপস চক্রবর্তী, সমীর ঝঁা প্রমুখ। শুক্রবার নিউ টাউন বিশ্ব বাংলা কনভেনশন সেন্টারে।  ছবি:  কৌশিক সরকার ‌

জনপ্রিয়

Back To Top